Home » শিক্ষা » ক্যাম্পাস » হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ – এ পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ২০২০ অনুষ্ঠিত

হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ – এ পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ২০২০ অনুষ্ঠিত

 মো. রফিকুল ইসলাম জোমাদ্দার মিলন ॥ ১৫ জানুয়ারি ২০২০ তারিখে হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ- এরইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডিসিন অনুষদের উদ্যোগে বিশ^বিদ্যালয়ের নিজস্ব ক্যাম্পাস হামদর্দ নগর, গজারিয়া, মুন্সিগঞ্জে পিঠা উৎসব ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ২০২০’’ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির আসন অলংকৃত করেন হামদর্দ বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক ড. হাকীম মোঃ ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া। এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের বোর্ড অবট্রাস্টিজ ĺর সম্মানিত সদস্য সর্বজনাব মোহাম্মদ জামালউদ্দিন (রাসেল), মোঃ আনিসুলহক, অধ্যাপক শিরী ফরহাদ, লেঃ কর্নেল মাহবুবুল আলম চৌধুরী (অব.), ডাঃ হাকীম নার্গিস মার্জান, বিশ^বিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. আবুল খায়ের, বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সাদিরুল ইসলাম,সাইন্স, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন (ভারপ্রাপ্ত) সহযোগী অধ্যাপক ড. মো: রবিউল আলম, রেজিস্ট্রার ড. মোঃ মোয়াজ্জম হোসেন, পাবলিক হেলথ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসাইন এবং অন্যান্য অনুষদের শিক্ষকগণ এবং শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুল মান্নান।অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য উপস্থাপন করেন ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডিসিনের বিভাগীয় প্রধান ডা: মো: খাইরুল আলম।প্রধান অতিথি ড. হাকীম মোঃ ইউছুফ হারুন ভূঁইয়া তাঁর বক্তৃতায় প্রথমেই ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডিসিন অনুষদের সকলকে এই ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করার জন্য ধন্যবাদ প্রকাশ করেন। তিনি ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডিসিন অনুষদে রশিক্ষার্থীদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত এবং আলোকিত মানুষ হয়ে নৈতিকতার সাথে রোগীদের সুচিকিৎসা প্রদানের জন্য আহবান জানান। তিনি আরো বলেন শুধুমাত্র হামদর্দই বাংলাদেশের ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক চিকিৎসা শাস্ত্রের উন্নয়ন, প্রসার এবং প্রতিষ্ঠা করেছে। পরিশেষে তিনি আশা করেন যে, হামদর্দ বিশ^বিদ্যালয়ের ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক অনুষদের শিক্ষার্থীরা শ্রেষ্ঠ চিকিৎসক হয়ে দেশ ও জাতির কল্যাণে আত্মনিয়োগ করবে। উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আবদুল মান্নান তাঁর বক্তৃতায় প্রথমেই প্রধান অতিথি এবং বিশ^বিদ্যালয়ের বোর্ড অব ট্রাস্টিজ-ĺর সদস্যদের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক মেডিসিন অনুষদের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে এই ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার পার্থক্য তুলে ধরে বলেন কলেজ শুধুমাত্র অর্জিত জ্ঞানের অনুকরণ করে আর বিশ^বিদ্যালয় অর্জিত জ্ঞান চর্চার পাশাপাশি জ্ঞানের নতুন দিগন্ত সৃষ্টি করে। তিনি আশা করেন যে, একদিন এই বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এই বিশ^বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক ড. হাকীম মোঃ ইউছুফ হারুন ভূাঁইয়া’র মত মানবতা মূলক কাজের মাধ্যমে সমাজ ও দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

পাঠকের মতামত...

Total Page Visits: 15 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*