Home » আন্তজাতিক » করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ফেরার অভিজ্ঞতা নিয়ে যা বললেন এই নারী

করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ফেরার অভিজ্ঞতা নিয়ে যা বললেন এই নারী

বাংলার কন্ঠস্বর // করোনা নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিলেন এক মার্কিন নারী। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে উঠে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন। সেখানেই এমন বার্তা দেন সকলের প্রতি। মার্কিন ওই তরুণীর নাম এলিজাবেথ স্কেইনডার। আমেরিকার করোনা আক্রান্ত এলাকা ওয়াশিংটনের বাসিন্দা এলিজাবেথ। তিনি একটি বায়োটেকনোলজি সংস্থার ম্যানেজার পদে কর্মরত। সম্প্রতি করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ হয়ে উঠার পর অসুস্ততার সময়গুলো কেমন কেটেছে, কী কী লক্ষণ ছিল রোগের, এ সব নিয়েই ফেসবুকে পোস্ট করেন তিনি।

এলিজাবেথ জানান, গত ২২ ফেব্রুয়ারি একটা পার্টিতে অংশ নেয়ার তিন দিন পর থেকেই অসুস্থতা অনুভব করেন তিনি। সেসময়, করোনাভাইরাসের প্রাথমিক উপসর্গ যেমন হাঁচি-কাশি, সেগুলোর কোনওটাই তাঁর ছিল না। তবে খুব বেশি পরিশ্রম করলে যেমন দুর্বলতা হয়, অনেকটা সে রকমই ছিল। এলিজাবেথ জানান, তার প্রথমে মাথাব্যথা, সারা গায়ে ব্যথা আর সঙ্গে জ্বর জ্বর ভাব। প্রথমে খুব একটা গুরুত্ব না দিলেও পরদিন ঘুম থেকে উঠে শরীরে ১০৩ ডিগ্রি জ্বর সঙ্গে কাঁপুনি। যেহেতু করোনাভাইরাসের সাধারণ লক্ষণ হাঁচি-কাশি এবং শ্বাসকষ্ট কোনওটাই তাঁর ছিল না, তাই চিকিৎসকও তাঁকে সাধারণ জ্বরের ওষুধ দিয়ে বিশ্রাম নেওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু ওষুধে কাজ না হওয়ায় তিনি যে পার্টিতে যোগদান করেছিলেন, ওই পার্টির আরও কয়েকজনের মধ্যে একই অসুস্থতার কথা শুনে করোনাভাইরাস টেস্ট করানোর সিদ্ধান্ত নেন এলিজাবেথ।

টেস্টের পর তার করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়। তবে ততদিনে তিনি আগের থেকে অনেকটাই সুস্থ হয়ে উঠেছিলেন, তাই চিকিৎসকেরা তাঁকে হাসপাতালে ভর্তির বদলে বাড়িতেই নিজেকে আলাদা রাখতে বলেছিলেন। সেই সঙ্গে বিশ্রাম ও প্রচুর পরিমাণে জল খেতে বলেছিলেন। এই মুহূর্তে তিনি সম্পূর্ণ সুস্থ। সাতদিন নিজেকে ঘরে বন্দি রাখার পর দৈনন্দিন স্বাভাবিক কাজকর্ম করতে শুরু করেছেন। তবে এখন অনেক সাবধানে থাকছেন। মানুষের ভিড় এড়িয়ে চলছেন।

পাঠকের মতামত...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*