Home » সর্বশেষ সংবাদ » চিৎকার করায় প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম

চিৎকার করায় প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম

বাংলার কন্ঠস্বর // শরীয়তপুরে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম করে স্বর্ণের চেইন চুরির অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে সদর উপজেলার আংগারিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ ভাসানচর গ্রামে নেছার উদ্দিন সরদারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শুক্রবার (১৩ মার্চ) দুপুর দেড়টার দিকে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আটকরা হলেন- দক্ষিণ ভাসানচর গ্রামের ইনু মাদবরের ছেলে খবির মাদবর (১৯) ও একই গ্রামের আনাছুদ্দিন সরদারের ছেলে তাইজদ্দিন সরদার (১৭)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সৌদি আরব প্রবাসী নেছার উদ্দিন সরদারের স্ত্রী হাসিনা বেগম তিন সন্তানকে নিয়ে গ্রামে বাস করেন। তাদের দোচালা টিনের ঘর রয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে হাসিনা বাহিরের বাথরুমে গেলে দুইজন চোর ঘরে ঢুকে খাটের নিচে ওঁৎ পেতে থাকে। বাথরুম থেকে এসে তিনি দরজা বন্ধ করে ঘুমিয়ে গেলে ঘরে থাকা স্টিলের আলমারি থেকে স্বর্ণ ও নগদ টাকা চুরি করে ওই চোরেরা। পরে হাসিনার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন চুরি করে পালানোর সময় তার ঘুম ভেঙে যায়। এ সময় হাসিনা চিৎকার করলে হাতে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে তাকে কোপ দেয় এক চোর। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করেশরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আহত হাসিনা বেগমের বড় বোন শিল্পী বেগম বলেন, আমার বোনের ঘরে খবির মাদবর ও আনাছুদ্দিন সরদার চুরি করতে ঢোকে। তারা বোনের স্টিলের আলমারি থেকে ৩ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ৪ লাখ টাকা চুরি করেছে। বোনের গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন চুরি করে পালানোর সময় চিৎকার করলে ছুরি দিয়ে তাকে কুপিয়ে জখম করেছে।

প্রতিবেশী মোশারফ সরদার বলেন, গভীর রাতে চিৎকার শুনে হাসিনার ঘরে ছুটে যাই। এ সময় হাসিনাকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাই।

আংগারিয়া পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত পরিদর্শক মিন্টু মন্ডল বলেন, শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে মাদারীপুরের খাসেরহাট এলাকা থেকে খবির মাদবর ও তাইজউদ্দিন সরদারকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই বাড়িতে চুরির বিষয়টি তারা স্বীকার করেছে। তাদের কাছ থেকে ছুরিসহ বিভিন্ন আলামাত উদ্ধার করা হয়েছে।

পালং মডেল থানা পুলিশের ওসি (তদন্ত) মো. আশরাফুল ইসলাম বলেন, ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। আহত হাসিনা হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

পাঠকের মতামত...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*