Home » বরিশাল » মুজিববর্ষে পটুয়াখালীর ৪০টি পরিবারের মুখে হাসি ফোটালো প্রধানমন্ত্রী

মুজিববর্ষে পটুয়াখালীর ৪০টি পরিবারের মুখে হাসি ফোটালো প্রধানমন্ত্রী

বাংলার কন্ঠস্বর //  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্ম শতবর্ষে পটুয়াখালীর গলাচিপায় সরকারিভাবে ৪০টি পরিবার পাচ্ছেন দুর্যোগ সহনীয় ঘর। অস্বচ্ছল, হতদরিদ্র, গৃহহীণ, নদীভাঙ্গনসহ বিভিন্ন দুর্যোগে গৃহহীণ পরিবারগুলো ঘর পেয়ে দারুন খুশি। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, মুজিববর্ষ উপলক্ষে উপজেলায় ৪০টি ঘর দেয়া হয়েছে। এতে এক কোটি নিরানব্বই লক্ষ চুরানব্বই হাজার চারশত টাকা ব্যয়ে দুর্যোগ সহনীয় ঘর নির্মান করা হয়েছে।

“জমি আছে, ঘর নেই” প্রকল্পের আওতায় এসব ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। প্রত্যেকটি ঘর দুই শতক জমিতে নির্মান করা হয়েছে। এসব ঘরের বরাদ্দ ধরা হয়েছে দুই লক্ষ নিরানব্বই হাজার আটশত ষাট টাকা করে। দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের কাবিটা /টিআর কর্মসূচির বিশেষ খাদের অর্থে মানবিক সহায়তায় উপজেলায় এসব ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। দরিদ্র পরিবারগুলো এসব ঘর পেয়ে দারুন খুশি।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এসএম দেলোয়ার হোসাইন জানান, ২০১৯-২০২০ অর্থবছর গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ টিআর কর্মসূচির আওতায় গৃহহীণদের দুর্যোগ সহনীয় বাসগৃহ নির্মাণে আমরা বদ্ধ পরিকর। তিনি আরও জানান, সার্বক্ষনিক তদারকির মাধ্যমে স্বচ্ছতার ভিত্তিতে পিআইসি কমিটির মাধ্যমে ঘরগুলো তৈরী করা হয়েছে। কোন ধরনের অনিয়মকে প্রশ্রয় দেওয়া হয়নি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, উপজেলায় প্রতিটি হতদরিদ্রকে পুর্নবাসন করা হবে।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মু. শাহিন শাহ বলেন, শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে হতদরিদ্র পরিবারগুলোর মুখে হাসি। এটাই শেখ হাসিনার অবদান।
পটুয়াখালী- ৩ (গলাচিপা-দশমিনা) এলাকার সংসদ সদস্য এসএম শাহজাদা বলেন, হতদরিদ্র মানুষের জন্য জননেত্রী শেখ হাসিনা নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

পাঠকের মতামত...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*