Home » অন্যান্য » ধর্ম » রমজানের মাগফিরাত লাভে যে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে

রমজানের মাগফিরাত লাভে যে বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে

বাংলার কন্ঠস্বর // চোখের পলকে রহমতের দশক ফুরিয়ে আজ মাগফিরাতের প্রথম দিন শুরু হলো।

রহমতের পুন্যময় দিবারাত্রিতে আল্লাহ যেভাবে তার অসংখ্য অগণিত বান্দার ওপর রহমতের প্রবল বারি বর্ষণ করেছেন, ঠিক মাগফিরাতের এই দশকেও অগণিত পাপিতাপীকে ক্ষমার ঘোষণা শুনিয়ে দেবেন।

ভাগ্যবান তারাই, যারা তাদের কৃতপাপ থেকে সত্যদিলে তওবা করে আল্লাহর দিকে ফিরে আসবে। ক্ষমাটা আসলে তাদের জন্য।

অতীত জীবনের মতো রমজানেও পাপ সাগরে আকণ্ঠ নিমজ্জিত থেকে ‘আমরা মুসলমান’ আল্লাহ তো মাফ করবেনই এমন ধারণা নিয়ে যারা অন্যায় অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছেন, তারা মূলত বোকার স্বর্গে বাস করছেন।

মহানবী (সা.) বলেন, বুদ্ধিমান ওই ব্যক্তি, যে নিজের ব্যাপারে সদা সজাগ, সতর্ক থাকে এবং আখেরাতের জন্য আমলে নিয়োজিত থাকে। আর নির্বোধ সে, যে নিজের কু-প্রবৃত্তির অনুসরণ করে আবার আল্লাহর ক্ষমার আশা করে। (বোখারি)

সুতরাং আল্লাহর ক্ষমা পাওয়ার জন্য প্রথম শর্ত হচ্ছে– আগে গুনাহ ছাড়তে হবে, তার পর তওবা করতে হবে।

একটি বিষয় খুব ভালোভাবে মনে রাখতে হবে যে, একজন মানুষ সারাজীবনে যত পাপ করে, তার সিংহভাগই জিহ্বার কারণে হয়ে থাকে। মিথ্যা, গিবত, গালাগাল– সব ক্ষেত্রে এই জিহ্বার একচ্ছত্র আধিপত্য।

তাই করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে যেমন পুরো দেশকে লকডাউন করে দেয়া হয়েছে, ঠিক তেমনই পরকালের জন্য সঞ্চয় করে রাখা মূল্যবান নেকি বাঁচাতে জিহ্বাকে লকডাউন করে দেয়া দরকার। মাগফিরাত তো তারাই কামনা করতে পারে, যাদের জিহ্বা গাল কোয়ারেন্টিনে আছে, প্রয়োজন ছাড়া যারা কথা বলে না।

আল কোরআনে জিহ্বার সংবরণের কথা

১. আর তোমরা দূরে থাকো মিথ্যা বলা থেকে। (সুরা হজ, আয়াত নং ৩০)

২, হে মুমিনগণ! তোমরা বহুবিধ অনুমান হতে দূরে থাক। কারণ অনুমান কোনো কোনো ক্ষেত্রে পাপ এবং তোমরা একে অপরের গোপনীয় বিষয় অনুসন্ধান করো না এবং একে অপরের পশ্চাতে নিন্দা করো না। তোমাদের কেউ কি তার মৃত ভাইয়ের গোশত ভক্ষণ করতে চাও? বস্তুত তোমরা তো এটিকে ঘৃণাই মনে করো। তোমরা আল্লাহকে ভয় করো। আল্লাহ তওবা কবুলকারী ও পরম দয়ালু। (সুরা হুজুরাত, আয়াত নং ১২)

৩. এবং অনুসরণ করো না তার, যে কথায় কথায় শপথ করে, যে লাঞ্চিত পশ্চাতে নিন্দাকারী এবং যে একের কথা অপরের নিকট লাগিয়ে বেড়ায়। (সুরা আল-ক্বলম, আয়াত নং ১০-১১)

হাদিসে জিহ্বার কথা

১. প্রকৃত মুসলমান ওই ব্যক্তি, যার জিহ্বা ও হাত থেকে অপর মুসলমান নিরাপদ থাকে। (বোখারি ও মুসলিম)

২. বড় বড় গুনাহের অন্যতম হচ্ছে– মিথ্যা বলা বা মিথ্যা সাক্ষ্য দেয়া। (বোখারি)

প্রিয় পাঠক! কোরআন হাদিসের আলোকে ইহকাল ও পরকালে অফুরন্ত নেয়ামত উপভোগের জন্য জিহ্বাকে গাল কোয়ারেন্টিনে রাখার বিকল্প নেই।

তাই আসুন, মাগফিরাতের মূল্যবান দিনগুলোতে জিহ্বার লকডাউন ও কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করে আমরা আমাদের তওবার মূল্যবান কর্মটি সম্পাদনে আত্মনিয়োগ করি। অর্থবহ করে তুলি পবিত্র মাহে রমজানের মাগফিরাতের দিনগুলো।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 21 - Today Page Visits: 2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*