Home » বরিশাল » বরগুনা » আমতলীতে মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর করে টাকা ছিনতাই

আমতলীতে মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর করে টাকা ছিনতাই

বাংলার কন্ঠস্বর //  আমতলীর গাজীপুর বাজারে রবিবার সকালে এক মুক্তিযোদ্ধাকে মারধর করে টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহত মুক্তিযোদ্ধাকে স্বজনরা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দিয়েছেন।

 

 

জানাগেছে, উপজেলার গাজীপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আ. মালেক গাজী ২০০৬ সালে এক একর সরকারী খাস জমি বন্দোবস্ত পান। ওই জমি গত ১৪ বছর ধরে সে ভোগদখল করে আসছে।

 

মুক্তিযোদ্ধা আ.মালেক গাজী অসুস্থ্য হয়ে পরলে এবছর ওই জমি তার ভাতিজা মাসুদ গাজী, বাহাদুর গাজী, বাবুল গাজী, নুরুল ইসলাম, আলতাফ দুয়ারী, মোতালেব মুসুল্লী ও রিয়াজ হাওলাদার তার জমি দখল করে নেয়।

 

এ নিয়ে রবিবার সকালে মালেক গাজীর সাথে মাসুদ গাজী ও বাহাদুরের কথা কাটাকাটি হয়। কথাকাটাকাটির পর মালেক গাজী সকাল ১০ টার দিকে গাজীপুর বন্দরের অগ্রনী ব্যাংকে শাখায় টাকা জমা রাখতে ব্যাংকে যাচ্ছিল।

 

 

পথিমধ্যে মাসুদ গাজী, বাহাদুর গাজীসহ ৬-৭ জনে তার পথরোধ করে এবং তাকে কিল ঘুসি মেরে তার সাথে থাকা ৮১ হাজার ৩’শ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে বলে দাবী করেন মুক্তিযোদ্ধা আ. মালেক । তার ডাক চিৎকারে স্বজনরা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেন।

 

 

আহত মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মালেক গাজী কান্নাজরিত কন্ঠে বলেন, মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সরকারীভাবে বন্দোবস্ত পাওয়া জমির ৫৫ শতাংশ স্থানীয় মাসুদ গাজী, বাহাদুর গাজী, বাবুল গাজী, নুরুল ইসলাম, আলতাফ দুয়ারী, মোতালেব মুসুল্লী ও রিয়াজ হাওলাদার জোড় করে দখল করে নিয়েছে।

 

 

আমি এর প্রতিবাদ করলে আমাকে মারধর করে ব্যাংকে যাওয়ার পথে আমার সাথে থাকা ৮১ হাজার ৩’শ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

 

 

অীভযুক্ত মাসুদ গাজী তার বিষয়ে আনা সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার সাথে তার কোন বিরোধ নেই।

 

 

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, এ বিষয়টি আমার জানা নেই। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 22 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*