Home » অপরাধ » মঠবাড়িয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম

মঠবাড়িয়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে জখম

বাংলার কন্ঠস্বর // পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় জমি দখল করতে ঘরবাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়ে নার্গিস বেগম নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত করেছে সন্ত্রাসীরা। এ সময় ঘরে থাকা স্বর্ণালংকার মোবাইলসহ নগদ তিন লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। শনিবার সকাল সাতটায় নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

আহত নার্গিস উপজেলার ধানিসাফা ফুলঝুরি গ্রামের প্রবাসী আবু জাফর এর স্ত্রী। বর্তমানে গুরুতর অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। হামলায় নার্গিস বেগমের মাথার পিছনে অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মারাত্মক জখম রয়েছে। অবস্থার অবনতি হলে যেকোনো সময় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক। 

আহতের স্বজনরা বরিশালটাইমসকে জানান, দীর্ঘদিন ধরে প্রবাসীর স্ত্রী নার্গিস বেগমের সাথে একখণ্ড জমি নিয়ে প্রতিবেশী মৃত ইউনুস আলীর ছেলে নুরুল ইসলাম ও তাদের সহযোগী হোসেন আলীর ছেলে জয়নাল সহ ছায়েদ মোল্লা, সালাম মোল্লাদের বিরোধ চলে আসছে। বিরোধীয় জের ধরে নুরুল ইসলামসহ তাদের সহযোগীরা জমি দখল করতে প্রবাসী আবু জাফরের পরিবারের উপর জুলুম অত্যাচার নিপীড়ন চালিয়ে আসছে। তাছাড়া তারা প্রায় সময় তুচ্ছ বিষয় নিয়ে আবু জাফর এর স্ত্রী সহ তার পরিবারকে বিভিন্ন ভয়-ভীতি সব প্রাণনাশের হুমকি দেয়।

আবু জাফর প্রবাসে থাকার সুযোগে তার স্ত্রীসহ পরিবারের ওপর অত্যাচার নির্যাতন চালানোর বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের জানালে নুরুল ইসলামসহ তাদের সহযোগী সন্ত্রাসীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে যায়।
প্রবাসীর স্ত্রী নার্গিস বেগম সহ তার সন্তানদের বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করতে নুরুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা নার্গিসকে হত্যার পরিকল্পনা করে।

একপর্যায়ে ঘটনার দিন ১৯ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল সাতটায় নুরুল ইসলাম ও তার সহযোগীদের নেতৃত্বে নুরুল ইসলামের ছেলে শাকিব সাইফুল, তাদের সহযোগী মোশারফ এর ছেলে মিজান, মিলন রুস্তুমের ছেলে জাকির, আচমতের ছেলে বাচ্চুসহ ১৫ থেকে ২০ জন সন্ত্রাসী পরিকল্পিতভাবে প্রবাসী নার্গিস বেগমের ঘরবাড়ি ভাঙচুর হামলাসহ স্বর্ণালংকার ও নগদ তিন লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ সময় নার্গিস বাধা দিলে শাকিব, সাইফুলসহ অন্যান্য সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হত্যার চেষ্টায় নার্গিসের মাথায় মারাত্মক জখম করে।
নার্গিস অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটে পড়লে নার্গিসের মৃত্যুর বিষয়টি তারা নিশ্চিত হয়ে চলে যায়।

স্থানীয়রা নার্গিসকে তাৎক্ষণিক উদ্ধার করে মঠবাড়িয়া প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।
এদিকে ঘটনা ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করতে সন্ত্রাসী নুরুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা উল্টো নার্গিস বেগমের ওপর মামলার ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে।

এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে আহত নার্গিসের স্বজনরা জানান।’

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 48 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*