Home » বরিশাল » বরিশাল যুবদলে বিভক্তি, ক্ষুব্ধ কর্মী-সমর্থকেরা

বরিশাল যুবদলে বিভক্তি, ক্ষুব্ধ কর্মী-সমর্থকেরা

বাংলার কন্ঠস্বর // অন্তকোন্দল ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বিভক্তি দেখা দিয়েছে বরিশাল জেলা (দক্ষিণ) যুবদলে। সংগঠনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে মঙ্গলবার দুই মেরুতে অবস্থান নিয়ে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করেছে। সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লবের নেতৃত্বে এক গ্রুপ সদর রোডস্থ মসজিদের সামনে অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদক এইচ এম তসলিম উদ্দিনের নেতৃত্বে ১০০ গজ দুরত্বে প্রেসক্লাবে প্রতিষ্ঠাবাষির্কীর আয়োজন করে। ফলে উপজেলাসহ দুর-দুরান্ত থেকে আগন্তক নেতাকর্মীদের কে কোন আয়োজনের অংশ নিবে এ নিয়ে দেখা দেয় অস্বস্তি। একটা পর্যায়ে উভয় নেতার আয়োজন সফলভাবে পালন হলেও সাধারণ সম্পাদক তসলিমের কর্মসূচিতে কর্মী-সমর্থকদের উপস্থিতি বেশি লক্ষ্য করা গেছে। এখানে প্রধান অতিথি ছিলেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির সভাপতি এবায়দুল হক চাঁন। অন্যদিকে পারভেজ আকন বিপ্লবের আয়োজনের প্রধান অতিথি থাকেন উত্তর জেলা বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ। হামলা, মামলা, নির্যাতন নিপিড়নে বিপর্যস্ত বিএনপির সহযোগী এ সংগঠনে এই মুহূর্তে বিভাজন দলকে আরও দুর্বল করে দেওয়াসহ স্থানীয় রাজনীতি প্রভাব ফেলবে এমনটাই মনে করছে কর্মীরা। 

একাধিক যুবদল নেতাকর্মী জানান, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উত্তর-দক্ষিণ জেলা বিএনপির শীর্ষ সারির নেতাদের মাঝে চলমান রাজনীতির প্রভাব যুবদলে পড়েছে। বিশেষ করে উত্তর বিএনপির সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ নিজের আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টায় যুবদলের একটি গ্রুপকে নেপথ্য ইন্ধন দেওয়ায় সংগঠন দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়ে। পূর্ব সিদ্ধান্তের আলোকে আজকে যুবদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আয়োজন একত্রিত করার সিদ্ধান্ত থাকলে একদিন আগে তা অপরাজনীতির কারণে বদলে যায়। ফলে দক্ষিণ যুবদলের সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লব গুটি কয়েক নেতাকর্মী নিয়ে অশ্বিনী কুমার হলের সামনে মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদকে নিয়ে কেক কাটেন।

অপর একটি সূত্র জানায়, উপজেলা থেকে যতো নেতাকর্মী মিছিল সহকারে এসেছে তার বেশি সংখ্যক প্রেসক্লাবে সাধারণ সম্পাদক এইচ এম তসলিম উদ্দিনের আয়োজনে অংশগ্রহণ করে। এবং সেখানে দক্ষিণ বিএনপি নেতা এবায়দুল হক চাঁনের নেতৃত্বে কেক কেটে দিবসটি উদযাপন করেন।

দক্ষিণ যুবদল সাধারণ সম্পাদক এইচ এম তসলিম উদ্দিন বলেন, কয়েকদিন পুর্বে সভাপতি পারভেজ আকন বিপ্লবের সাথে সভা করে একত্রিতভাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। কিন্তু তাকে কিছু না জানিয়ে সভাপতি একক সিদ্ধান্তে আয়োজনের প্রধান অতিথি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদকে করার ঘোষণা দেন। ফলে জেলা দক্ষিণের নেতারা উপেক্ষিত থাকায় সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে বাধ্য হয়েছেন। কারণ উপজেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা এমন সিদ্ধান্তে তিক্ত-বিরক্ত হয়ে ওঠেন। পরবর্তীতে সকলের সাথে সমন্বয় করে প্রেসক্লাবে কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যেখানে দক্ষিণ বিএনপি নেতা এবায়দুল হক চাঁন প্রধান অতিথি ছিলেন।

তসলিম উদ্দিনের অভিযোগ মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ উত্তর জেলা বিএনপি নেতা হয়ে তিনি গোটা বরিশালে ছরি ঘোরাতে চাইছেন। নেপথ্য ইন্ধন জুগিয়ে পারভেজন আকন বিপ্লবকে দিয়ে তিনি দলে বিভাজন তৈরি করে সুবিধা নিতে গিয়ে উল্টো বিএনপিকে আরও দুর্বল করার অপতৎপরতা চালাচ্ছেন।

তবে এসব অভিযোগ সমুলে অবান্তর দাবি করে একই সংগঠনের সভাপতি পারভেজন আকন বিপ্লব বলছেন, তিনি কোনো অপরাজনীতির শিকার নন। কেন্দ্রীয় নেতা মজিবর রহমান সরোয়ার বরিশালে না থাকায় মেজবাহ উদ্দিনকে প্রধান অতিথি করেছেন। সেখানে বিশেষ অতিথি এবায়দুল হক চাঁনকে রাখা হলেও তিনি আসেননি। কিন্তু উত্তরের নেতা দক্ষিণের আয়োজনে কেন- এমন প্রশ্নে কিছুটা সময় নিতে যুবদল নেতা বলেন, সকলের সম্মতিতে মেজবাহ উদ্দিনকে প্রধান অতিথি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে পারভেজন আকন বিপ্লব ঘনিষ্ট এক নেতা জানিয়েছেন, একক সিদ্ধান্তের কারণে সাধারণ সম্পাদক বিকল্প আয়োজন করায় অনেকেই বিরোধীতা করেছিলেন। কিন্তু তারপরেও সভাপতি বিপ্লব সিদ্ধান্তে অনঢ় থাকেন। ফলে উপজেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীরা ক্ষোভে এই আয়োজনে অংশ না নিয়ে তসলিমের প্রেসক্লাবে যোগ দেন।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 51 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*