Home » বরিশাল » ভোলা-চরফ্যাশনে আধুনিক হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে বর্জনের অনুরোধ

ভোলা-চরফ্যাশনে আধুনিক হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে বর্জনের অনুরোধ

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন ৷৷
ভোলা-চরফ্যাশন আধুনিক ডায়াগনস্টিক সেন্টারে স্বেচ্ছায় ব্লাড দান করতে আসা ব্যক্তির ব্লাড নেয়ার সময় পরিচ্ছন্ন কর্মী ঝরনা রানী পা দিয়ে ব্লাড ব্যাগ নাড়াচাড়া করার অভিযোগে, সেন্টার কর্তৃপক্ষ এক লিখিত বিবৃতিতে ঝরনা রানীকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়ার খবর নিশ্চিত করেছেন৷ এ খবর শুনে চরফ্যাশনের বিভিন্ন সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ প্যাথলজিস্ট ব্যতীত পরিচ্ছন্ন কর্মী ঝরনা রানীকে দিয়ে ব্লাড সংগ্রহের কাজ করানোর অপরাধে চরফাশন আধুনিক হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে বয়কট ও শাস্তির আওতায় আনার অনুরোধ জানিয়েছেন৷
রবিবার (১৮অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টায় চরফ্যাশন আধুনিক হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে৷ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হয়ে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ভোলা জেলা নাগরিক ফোরাম (দক্ষিণ), চিলেকোঠা, বন্ধন ব্লাড ফাউন্ডেশন, গ্যালাক্সি স্বেচ্ছাসেবী ফাউন্ডেশন, জলবায়ু ফোরামসহ অসংখ্য সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও শাস্তির দাবি জানিয়েছেন৷
অনুসন্ধানে জানা যায়, চরফ্যাশন আধুনিক হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে সেবিকা হিসেবে যাদেরকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে তারা প্রায়ই গার্মেন্টস কর্মী৷ নেই কোনো শিক্ষা বা প্রাথমিক ধারণা৷ কিছুদিন পূর্বে সিজার না করার অপরাধে এক গর্ভবতী মাকে হাসপাতালের বেড থেকে ফেলে দেয়ার অভিযোগও পাওয়া যায়৷
ভোলা জেলা নাগরিক ফোরাম (দক্ষিণ) এর সভাপতি এম আবু সিদ্দিক জানান, প্যাথলজিস্ট ব্যতীত পরিচ্ছন্নকর্মী কে দিয়ে ব্লাড সংগ্রহের কাজ করানোর জন্য চরফ্যাশন আধুনিক হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষ এর দায় এড়াতে পারেন না৷ ইতিপূর্বে এ সেন্টারের মালিক পক্ষের নির্দেশে একজন মুমূর্ষু রোগীকে বেড থেকে নিচে ফেলে দেয়া হয়েছিল৷ সে সংবাদ দৈনিক যুগান্তর, ভোরের কাগজসহ একাধিক জাতীয় ও অনলাইন পত্রিকায় আমারা দেখেছি৷ এসকল ঘটনায় চরফ্যাশনের সাধারণ জনগণ চরফ্যাশন আধুনিক হাসপাতাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে বয়কটের অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি৷
উপজেলার জলবায়ু ফোরামের সহ-সভাপতি মনির আসলামী জানান, পরিচ্ছন্ন কর্মী ঝরনা রানী ব্লাড সংগ্রহের কি বুঝে৷ সেতো টেকনোলজিস্ট নয়৷ তার পরেও ভুলের জন্য সকলের নিকট ক্ষমা চেয়েছেন৷ এরপরেও চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে৷ কিন্তু যারা একাজ তাকে দিয়ে করিয়েছেন তাদের কোন শাস্তি হয়নি৷  কারণ তারা উচ্চবিত্ত৷

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 36 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*