Home » লিড নিউজ » ‘সন্ধ্যা’ নদী থেকে নারী হিসাব কর্মকর্তা উদ্ধার

‘সন্ধ্যা’ নদী থেকে নারী হিসাব কর্মকর্তা উদ্ধার

বাংলার কন্ঠস্বর // শুভ্রাতা কর্মকার নামে বরিশাল বিভাগীয় হিসাব নিয়ন্ত্রক কার্যালয়ের এক নারী কর্মকর্তাকে সন্ধ্যা নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছেন স্থানীয়রা। গতকাল বুধবার রাত ৯টার দিকে উজিরপুর উপজেলার কালিরবাজার এলাকায় সন্ধ্যা নদী থেকে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার শুভ্রাতাকে বাড়ি নিয়ে গেছেন তার স্বামী।

পুলিশ প্রথমে শুভ্রাতা কর্মকারকে ব্রিজের ওপর থেকে ফেলে হত্যার চেষ্টা করা হতে পারে বলে ধারণা করে। কিন্তু তিনি বিষয়টিকে দুর্ঘটনাবশত বললে পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাটিকে দুর্ঘটনা বলে নিশ্চিত করে। উজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল আহসান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শুভ্রাতা বরিশাল বিভাগীয় হিসাব নিয়ন্ত্রক কার্যালয়ে হিসাব নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন। তার স্বামীর নাম সঞ্জিব কর্মকার। তিনি পূবালী ব্যাংকের হিজলা উপজেলা শাখার কর্মকর্তা। তারা বরিশাল নগরীর বগুড়া রোড এলাকার বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতকাল রাত ৯টার দিকে উজিরপুর পৌরসভার কালীরবাজার এলাকা সংলগ্ন সন্ধ্যা নদীতে আলো ফেলা হলে শুভ্রাতা কর্মকারকে ভাসতে দেখা যায়। অসীম নামে এক ব্যক্তি এলাকার কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে ট্রলার যোগে নদী থেকে শুভ্রাতাকে উদ্ধার করেন। পরে উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। উজিরপুর থানা পুলিশকেও ঘটনাটি জানান।

উদ্ধারকারীরা জানিয়েছেন, হাসপাতালে নেওয়ার পর শুভ্রাতা প্রথমে পুলিশকে জানান, তাকে শিকারপুর ব্রিজের ওপর থেকে কেউ একজন নদীতে ফেলে দেয়। কিন্তু কী কারণে এ ঘটনা ঘটেছে, সে ব্যাপারে তিনি কিছু বলেননি। এমনকি বরিশাল থেকে কেন তিনি শিকারপুর ব্রিজে গেছেন সে বিষয়টিও অজ্ঞাত রয়ে গেছে।

উজিরপুর থানা ওসি জিয়াউল আহসান বলেন, ‘আমরা ধারণা করেছিলাম বরিশাল বিভাগীয় হিসাব নিয়ন্ত্রক কার্যালয়ের নারী কর্মকর্তাকে কেউ ফেলে দিয়েছে। কারণ, ব্রিজের পাশে রেলিং ছিল, হুট করেই সেখান থেকে পড়ে যাওয়া সম্ভব না। হয় তিনি নিজে ঝাঁপ দিয়েছেন না হয় কেউ তাকে ফেলে দিয়েছে। কিন্তু পরে শুভ্রাতা নিজেই জানান তিনি দুর্ঘটনাবশত পড়ে গিয়েছিলেন। তাকে কেউ ধাক্কা বা নিজে থেকে নদীতে ঝাঁপ দেননি। তার কাছ থেকে মোবাইল নম্বর নিয়ে তার স্বামীর সাথেও কথা বলেছি।’

ওসি আরও বলেন, ‘প্রথমে ঘটনাটি হত্যাচেষ্টা বলে ধরে নেওয়া হলেও শুভ্রাতা দাবি অনুযায়ী ঘটনাটিকে দুর্ঘটনা বলেই ধরে নেওয়া যাচ্ছে।’

আজ বৃহস্পতিবার সকালে উজিরপুর হাসপাতাল থেকে সুস্থ অবস্থায় স্ত্রীকে নিয়ে বরিশাল নগরীর বাসায় পৌঁছেছেন বলে জানিয়েছেন স্বামী সঞ্জিব কর্মকার।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 49 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*