শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো- চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধিসহ সকল চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা স্থায়ীভাবে বৃদ্ধি করা, নিয়োগ দুর্নীতি ও জালিয়াতি বন্ধ করা, নিয়োগ পরীক্ষার (প্রিলি ও লিখিত) প্রাপ্ত নম্বরসহ ফল প্রকাশ, চাকরিতে আবেদনের ফি সর্বোচ্চ ১০০ টাকা করা এবং একই সময়ে একাধিক নিয়োগ পরীক্ষা বন্ধ করে সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষার ব্যবস্থা করা।

কর্মসূচিতে শিক্ষার্থীরা বলেন, পড়ালেখা শেষ করার পর সবারই লক্ষ্য থাকে ভালো একটি পেশায় প্রবেশ করার। বেকারত্ব, পরিবারের চাপ ও আর্থিক কষ্টে অনেকেই আত্মহত্যা করছে। পড়াশোনা শেষে সবারই স্বপ্ন থাকে একটা ভালো চাকরি পাওয়া। কিন্তু কোটি কোটি টাকার দুর্নীতির মাধ্যমে যদি চাকরির পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস হয়ে যায় তাহলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা কোথায় যাবে? বাবার টাকা থাকায় একজন কম মেধাবী হয়েও টাকার বিনিময়ে ভালো চাকরি করছে, অন্যদিকে মেধা থাকার পরও অর্থের অভাবে অনেকে ভালো চাকরি পাচ্ছেন না। মানববন্ধনকালে শিক্ষার্থীরা তাদের দাবির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

মানববন্ধনে বগুড়ার সরকারি আজিজুল হক কলেজের শিক্ষার্থী আতিকুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন, রাবি শিক্ষার্থী কামরুজ্জামান, প্রাক্তন ছাত্র খাইরুল ইসলাম ও সিবলী নোমান প্রমুখ। এসময় শতাধিক চাকরিপ্রত্যাশী শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।