1. sarderamin830@gmail.com : Mohammed Amin : Mohammed Amin
  2. banglarkonthosor24@gmail.com : বাংলার কন্ঠস্বর : বাংলার কন্ঠস্বর
টিকটকে আসক্ত বরিশাল কারাগারের একদল কারারক্ষী - বাংলার কন্ঠস্বর ।। BanglarKonthosor
বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন
নোটিশ :
দেশর সকল জেলা-উপজেলা,থান-বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি কলেজ সমূহে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...মেধাবীদের কাছ থেকে আবেদন আহ্বায়ন করা যাচ্ছে । যোগাযোগ: ০১৭৭২০২৯০৪৮।

টিকটকে আসক্ত বরিশাল কারাগারের একদল কারারক্ষী

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ৯৭ বার

বিশেষ প্রতিবেদক // এনালগ থেকে অতিমাত্রায় ডিজিটালের রূপান্তরিত হয়েছে শহর থেকে গ্রামের মানুষ। স্মার্টফোন ব্যবহার করেন কিন্তু ফেইসবুক, ইউটিউব, টিকটক কিংবা লাইকির নাম শোনেননি বা ব্যবহার করেননি এরকম লোক খুঁজে পাওয়া বিরল। স্মার্টফোনে ব্যবহৃত অধিকাংশ অ্যাপসের মাধ্যমে ভালো কাজ হতে দেখা গেলেও টিকটকে অ্যাপের ব্যবহারকারী কার্যক্রম অ্যাপসটিকে করেছেন বিতর্কিত। টিকটক স্টার হওয়ার স্বপ্নে বিভোররা দিন দিন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে।

কিশোর-কিশোরী কিংবা তরুণ-তরুণীর পরে এবার টিকটকে আসক্ত হয়ে পড়েছেন বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের বেশ কয়েকজন কারারক্ষী। অশালীন অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে ভিডিও বানিয়ে তারাও সস্তা জনপ্রিয়তার নেশায় মেতেছেন। কারাগারে ডিউটি চলাকালীন সময়ে সঠিকভাবে ডিউটি পালনের বদলে তারা সময় খরচ করছেন টিকটকের মতো অ্যাপে। টিকটকের মতো অ্যাপসে কয়েক সেকেন্ডের তাল-বেতাল ভিডিও করে সস্তা জনপ্রিয়তা হওয়ার নেশায় পড়ছেন তারা।

আধুনিক সভ্যতায় বন্দিদের সংশোধন ও সুপ্রশিক্ষিত করে সভ্য সমাজের মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার এই প্রতিষ্ঠানে ডিউটিরত অবস্থায় পোশাক পরে টিকটক ভিডিও বানিয়ে ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন কতিপয় অসাধু কারারক্ষীরা। তাদের এমন কর্মকান্ড বরিশাল কারাগারের সুনামকে অনেকাংশে ক্ষুন্ন করছে। সেই সাথে ধ্বংস হচ্ছে কারাগারের নিরপত্তা ব্যবস্থা ও কারারক্ষীদের নৈতিকতা। ইতোমধ্যে এই টিকটক ভিডিও বানাতে গিয়ে বেশ কয়েকজন কারারক্ষী পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ায় তাদের দাম্পত্য জীবন ধ্বংসের উপক্রম হয়েছে। তবে এখনই এগুলো নিয়ন্ত্রণ না করলে পরিস্থিতি আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠার শঙ্কা রয়েছে।

সম্প্রতি বরিশাল কারাগারে কর্মরত মো. সুলতান নামের এক কারারক্ষীর টিকটক আইডি থেকে ভাইরাল হওয়া একাধিক ভিডিওতে দেখা গেছে, কারাগারে ডিউটিরত অবস্থায় অস্ত্র-গুলি নিয়ে কারারক্ষীর পোশাকে একসাথে দু’জন কারারক্ষী বাংলা গানের সঙ্গে নানান অঙ্গভঙ্গি করে তৈরি করেছেন টিকটক ভিডিও। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে টিকটক ভিডিও বানানো ওই দুই কারারক্ষীর মধ্যে একজনের নাম মো. সুলতান এবং অপরজন মো. মেহেদী হাসান।

একই কারাগারের কারারক্ষী মো. মুসার টিকটক আইডি থেকে ভাইরাল হওয়া একাধিক ভিডিওতে দেখা গেছে, পোশাকে ডিউটিরত অবস্থায় কারারক্ষী মুসা তার আরেক সহকর্মীকে নিয়ে বাংলা গানের সঙ্গে অশালীন অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে তৈরি করেছেন টিকটক ভিডিও।

মো. হাফিজুর রহমান হাসান নামের এক কারারক্ষীর টিকটক আইডিতে ঢুকে দেখা গেছে, কারাগারে ডিউটিরত অবস্থায় অস্ত্র-গুলি নিয়ে কারারক্ষীর পোশাকে তিনি একাই বাংলা-হিন্দি গানের সঙ্গে বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গিতে তৈরি করেছেন প্রায় অর্ধশত টিকটক ভিডিও। অনেকগুলো ভিডিওতে দেখা গেছে, হাফিজুর রহমান হাসান নামের এই কারারক্ষী ডিউটিরত অবস্থায় তার সহকর্মী মো. সুলতান, মো. মেহেদী, মো. মুসা ও তাহেরকে সাথে নিয়ে বাংলা-হিন্দি গানের সঙ্গে সমানতালে নেচে তৈরি করছেন টিকটক ভিডিও।

সূত্রে জানা গেছে, টিকটকে আসক্ত এসব কারারক্ষীদের প্রায় ৯০ শতাংশ টিকটক ভিডিও বরিশাল কারা অভ্যন্তরে তৈরি করা হয়েছে। যার কারণে এক কারারক্ষীর দেখাদেখি আরেকজনও এই ভিডিও বানাতে উৎসাহী হয়েছে। অনেকেই সবার চেয়ে বেশি সেরা ভিডিও তৈরি করতে গিয়ে অসুস্থ প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হয়েছেন। এতে তাদের মধ্যে একদিকে যেমন শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে, তেমনি ঘটছে মানসিক বিকৃতিও।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন কারারক্ষীর স্বজনেরা জানিয়েছেন, সস্তা জনপ্রিয়তা পেতে টিকটক অ্যাপসে সারাদিন পরে থাকায় টিকটক আসক্ত এসব কারারক্ষীদের সঙ্গে পরিবারের সদস্যরা ভালো সময় পার করতে পারে না। তারা (টিকটক আসক্ত) অল্পতেই রেগে যায়। মেজাজ খিটখিটে হয়। অনেকে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ভালো করে কথা বলে না। আবার অনেকে টিকটক আসক্ত অন্য নারীর সাথে পরকীয়ায় লিপ্ত হয়ে নিজ স্ত্রীর সাথে যোগাযোগ পর্যন্ত রাখেন না। টিকটকাসক্ত এসব কারারক্ষীদের নিয়ে এখন তাদের স্বজনদের মধ্যে ভয়, উদ্বেগ, হতাশা ও অবসাদ কাজ করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের একজন কারারক্ষী বলেন, ‘সহকর্মীদের ওইসব টিকটক ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় আমরা চরম বিব্রত। তারা ভিডিওগুলোর মধ্যে কান্ডজ্ঞানহীন আচরণ করেছেন। এসব ভিডিও মেসেজ করে অন্যান্য পেশার মানুষেরা হাসাহাসি করছেন।’

কারাগারে ডিউটিরত অবস্থায় অস্ত্র নিয়ে কারারক্ষীর পোশাকে টিকটক ভিডিও তৈরির বিষয়ে জানতে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার প্রশান্ত কুমার বনিকের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি আনুষ্ঠানিক কোনো বক্তব্য দিতে রাজ হননি। তবে তিনি জানিয়েছেন, বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ খবর নিয়ে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ পোষ্টটি ভাল লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ