ঢাকাThursday , 7 April 2016
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. এক্সক্লুসিভ
  6. করোনা আপডেট
  7. খুলনা
  8. খেলাধুলা
  9. গণমাধ্যম
  10. চট্টগ্রাম
  11. জাতীয়
  12. ঢাকা
  13. তথ্য-প্রযুক্তি
  14. প্রচ্ছদ
  15. প্রবাসে বাংলাদেশ

বরিশালে অবৈধ ভিডিও চ্যানেল, অশ্লীল দৃশ্যে দর্শকরা বিব্রত

Link Copied!

বাংলার কন্ঠস্বরঃ

বরিশাল মহানগর এলাকায় ক্যাবল অপারেটরগুলো সরকারী নীতিমালা ও তথ্যমন্ত্রণালয়ের অনুমোদন ছাড়া কয়েকটি ভিডিও চ্যানেল সম্প্রচার করে আসছে। এরমধ্যে বিটিসিএন এবং স্কাইভিশন অন্যতম। দুটি অপারেটর এরই কিছু ভিডিও চ্যানেল রয়েছে। যাতে বাংলা ছায়াছবির ফাঁকে ফাঁকে চলানো হয় নানান অশ্লীল বিজ্ঞাপন।

আর এসব চ্যানেল খুলতেই অশ্লীল বিজ্ঞাপনে বিব্রত দর্শক। এটা টিভি চ্যানেল না হলেও দর্শকদের আকৃষ্ট করা ক্যাবল নেটওয়ার্কারদের বাণিজ্যিক ভিডিও চ্যানেলের বিজ্ঞাপন প্রচারণা। আর এদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেও প্রতিকার পাচ্ছে না দর্শক বা গ্রাহকরা। কথিত  নামসর্বস্ব হারবাল মেডিকেলগুলোর অশ্লীল চটকদার বিজ্ঞাপনে যে কোন ভদ্র রুচিশীল দর্শক অতিষ্ঠ। বছরের পর বছর কেবল অপারেটরগুলো বিভিন্ন ভিডিও চ্যানেল খুলে অশ্লীল বিজ্ঞাপনের রমরমা ব্যবসা চালিয়ে আসছে। প্রচারিত চ্যানেলগুলো প্রতিনিয়ত অশ্লীল বিজ্ঞাপন প্রচারিত হওয়ায় পারিবারিক মূল্যবোধের আলোকে বিকাশিত কমলমতি শিশুরা  অশ্লীল  বিজ্ঞাপনের কথাগুলো না বুঝেই যেখানে সেখানে আবৃত করে। এতে চরম লজ্জায় পরে বয়োজ্যেষ্ঠরা।

নিয়ম বর্হিভূতভাবে বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং পন্যের বিজ্ঞাপন সম্প্রচার করে আসছে। ফ্রিকোয়েন্সি ডিকারেশন এ্যাক্ট ও ক্যাবল টিভি সম্প্রচার আইন ২০০৯ অনুযায়ী ডিস প্রযুক্তির মাধ্যমে আঞ্চলিক নিজস্ব টিভি চ্যানেল ও বানিজ্যিক ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু এ ধরনের বেআইনি চ্যানেল প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বিপুল রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে আসলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপ রহস্যজনক কারনে কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা।

এসব ভিডিও চ্যানেলগুলি অনুমোদনহীন ভাবেই চালানো হচ্ছে স্বীকার করে স্কাই ভিশন এর মালিক শিবু দাস বলেন, বাংলা ছায়াছবি চালানোর সময় হারবালের বিজ্ঞাপনের যে লেখাগুলো আসে সেগুলো আমাদের না, ওগুলো ডিস্কের সাথেই এ্যাড করা থাকে বলে সাফাই গাইলেন তিনি।

দিনের পর দিন বছরের পর বছর এই জাতীয় অশ্লীল বিজ্ঞাপন প্রচার হচ্ছে অথচ প্রশাসন তা বন্ধে কোন পদপেই গ্রহন করছে না। অথচ বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে বহুবার তাদের এহেন অপকর্ম তুলে ধরা হলেও প্রশাসনের কোন তৎপরতা চোখে পরেনি।

এ বিষয়ে বরিশাল জেলা প্রশাসক ড. গাজী মোঃ সাইফুজ্জামান বলেন, আমাদের কাছে ইতিপূর্বে এ বিষয়ে ্েকউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে এসব অনুমোদনহীন ভিডিও চ্যানেল এর বিরূদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তাছাড়া অশ্লীল বিজ্ঞাপন আমাদের সামাজিক মূল্যবোধের জন্য তিকর। এসব কোন ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।