Home » খেলাধুলা » ক্ষতিপূরণ নয়, সিরিজ খেলতে চায় বাংলাদেশ

ক্ষতিপূরণ নয়, সিরিজ খেলতে চায় বাংলাদেশ

বাংলার কন্ঠস্বর প্রতিবেদক : অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ খেলতে চায় বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়া সম্প্রতি বাংলাদেশ সিরিজ স্থগিত করেছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে বাংলাদেশ সফরে না এলে, বিসিবি চাইলে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ দাবি করতেই পারে। তবে সোমবার সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি জানিয়েছেন, ‘ক্ষতিপূরণ নয়, খেলতেই চায় বাংলাদেশ। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে আমাদের অত্যন্ত ভাল একটি সু-সম্পর্ক আছে। টাকা চাইলে ওরা এখনি পাঠিয়ে দেবে। কিন্তু তাতে আমাদের খুব একটা লাভ নেই। কিন্তু আমরা আসলে টাকা চাচ্ছি না। আমরা চাই ওরা আসুক, খেলুক আমাদের সঙ্গে।’

অস্ট্রেলিয়া সফর স্থগিত করার কয়েক দিনের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকা নারী ক্রিকেট দলও তাদের নির্ধারিত বাংলাদেশ সফল বাতিল করেছে। এমন জটিল পরিস্থিতি সৃষ্টির পেছনে ষড়যন্ত্র খুঁজে পাচ্ছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান! এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘ক্রিকেট বোর্ডর কোনো ষড়যন্ত্র নয়, এটা নিশ্চিত। আমার মনে হয় না এটা বাংলাদেশের ক্রিকেটকে টার্গেট করে কেউ করছে। ষড়যন্ত্র অবশ্যই হচ্ছে, নয়তো এমনটা হওয়ার কথা নয়। আমার ধারণা আমাদের দেশীয় কোনো ব্যক্তি কিংবা বর্গের ষড়যন্ত্র এটি। এর সঙ্গে বাইরের কোনো যোগসুত্র আছে কিনা আমি জানি না।’

এ বছর দারুণ ছন্দে রয়েছে বাংলাদেশ। হঠাৎ এমন স্থবিরতা বাংলাদেশের ক্রিকেটের জন্য বিরাট ক্ষতি মনে করছেন নাজমুল হাসান। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আমাদের জন্য এটি বিরাট ক্ষতি। হঠাৎ একটা ধাক্কা এল, ছন্দে ব্যাঘাত ঘটল। আমরা জয়ের ধারায় ছিলাম। আবার তারা (অস্ট্রেলিয়া) কবে আসবে সেটি নিশ্চিত নয়। ফলে কোচ-খেলোয়াড়রা ছুটিতে যেতে চাচ্ছে। ভাবনা-চিন্তায় হঠাৎ একটা পরিবর্তন। এটাই তো আমাদের জন্য বিরাট ক্ষতি।’

সম্প্রতি দুজন বিদেশী নাগরিককে হত্যার ঘটনা বিদেশে ভুল বার্তা পাঠিয়েছে। পাপন মনে করছেন, সবাইকে আবার আস্থায় ফিরে নিয়ে আসার দায়িত্বটাও বাংলাদেশরই। এ জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চাইলেন তিনি। বিদেশী নাগরিকদের হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত হলে পরিস্থিতি বদলে যাবে বলে আশাবাদ তার কন্ঠে।

আগামী ৯ অক্টোবর দুবাইতে আইসিসির সভা বসবে। সেখানে বিসিবি প্রধান ক্রিকেট বিশ্বের সবার সঙ্গে বাংলাদেশের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করবেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, ‘আইসিসির এই সভাতে গিয়ে আমার মূল কাজ হবে ওদেরকে বোঝানো, যে হুমকির জন্য খেলা বন্ধ হওয়ার মতো অবস্থা বাংলাদেশে নেই। হুমকিতো সব দেশেই আছে। তাতে করে খেলাতো বন্ধ করা যাবে না। কি করলে হুমকি থাকলেও আমরা খেলতে পারি তার একটি সমাধান আমাদের বের করতে হবে। এই জিনিসটা আমাদের আইসিসিকে বোঝাতে হবে।’

সভাতে নিজের অবস্থান তুলে ধরতে কোনো ক্রিকেট রাষ্ট্রকে সঙ্গে পাবেন কিনা এমন প্রশ্নে নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, ‘আইসিসিতে বাংলাদেশকে দুর্বল ভাবার কোনো কারণ নেই। খেলাধুলায় যেমন আমাদের খেলোয়াড়রা ভাল করছে। সেই সঙ্গে আইসিসিতে আমাদের অবস্থান আগের চেয়ে অনেক ভাল হয়েছে। বোর্ডগুলোর সঙ্গে দারুন সম্পর্ক রয়েছে আমাদের।’

অস্ট্রেলিয়া সিরিজ না হওয়ায় নভেম্বরে এগিয়ে নেওয়া হতে পারে জিম্বাবুয়ে সিরিজ। সেক্ষেত্রে তাদের রাজি করানো কতটুকু সম্ভব এমন প্রশ্নে তিনি বলেছেন, ‘আমার মনে হয়, আনা সম্ভব। সবকিছুই আলোচনা হচ্ছে। তারপরও আমি বলতে চাই, খামাকা লোক দেখানো একটা দল এনে আইসিসি কিংবা সাধারণ মানুষকে দেখাতে চাচ্ছি না। আমি দীর্ঘমেয়াদী সমাধানে বিশ্বাসী।’

সম্পাদনাঃ গাজী মামুন আহম্মেদ (বাংলার কন্ঠস্বর )

 

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 122 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*