Home » অন্যান্য » ঘরের সৌন্দর্যে আয়না

ঘরের সৌন্দর্যে আয়না

বাংলার কন্ঠস্বর ডেস্ক : ‘আয়নাতে ওই মুখ দেখবে যখন…’ সবারই নিশ্চয়ই মনে আছে সেই গানটির কথা। তবে এখন আর আয়না শুধু মুখ দেখার কাজে ব্যবহৃত হয় না। ঘর সাজাতেও আজকাল আয়নাকে বড় ভূমিকা পালন করতে দেখা যাচ্ছে।

আয়নার সঠিক ব্যবহার ঘরে এনে দিতে পারে শৈল্পিকতার ছোঁয়া। তাই এখন গৃহসজ্জার বিষয়ে প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে শৈল্পিকতার বিষয়টিকেও। ঘরের ড্রইং রুম থেকে শুরু করে স্নানঘর পর্যন্ত করা হচ্ছে আয়নার ব্যবহার।

আজকাল অনেক কারুকাজ পূর্ণ আয়না বাজারে কিনতে পাওয়া যায়। আবার একটি সাধারণ আয়না যথাযথভাবে সাজাতে পারলে পুরো ঘরের চেহারাই অসাধারণ হয়ে যেতে পারে। তবে এ কাজ কিন্তু এত সহজ না। যেমন তেমন সাজালে অত্যন্ত সুন্দর আয়নাও ঘরের পরিবেশকে অসুন্দর করে ফেলতে পারে। তাই খেয়াল রাখা দরকার কীভাবে আয়না দিয়ে ঘর সাজাবেন।

ড্রইং রুমে আয়না

আজকাল অনেকের ড্রইং রুমে আয়নার ব্যবহার দেখা যায়। ড্রাইং রুমে আয়না পাল্টে দিতে পারে রুমের চেহারা। এতে রুমের আভিজাত্যও ফুটে উঠবে।

রুমের সঙ্গে মানানসই এমন লম্বা, গোলাকার কিংবা চার-কোণা আকৃতির আয়না ব্যবহার করা যায়। এক্ষেত্রে রুমের রঙের কথাও মাথায় রাখতে হবে। তবে আয়নাকে অবশ্যই কারুকাজ পূর্ণ হতে হবে। রুমে ঢোকার দরজার সামনে আয়না দিতে পারলে ভালো হয়। কারণ অতিথি যখন আপনার বাসায় আসবে তখন সে আপনার রুচির পরিচয় পাবে।

শোবার ঘরে আয়না

শোবার ঘরে ড্রেসিং টেবিলের ব্যবহার দীর্ঘদিনের। দীর্ঘদিনের চলে আসা ঘরের সাজের সঙ্গে তাল মেলাতে চাইলে বড় ফ্রেমের আয়না দেয়ালে সেট করে দিতে পারেন। আয়নার চারপাশে ছোট ছোট বাতি লাগিয়ে দিলে রুম আকর্ষণীয় লাগবে।

সিলিংয়ে আয়না

সিলিংয়ে আয়নার ব্যবহার বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এক্ষেত্রে আপনি চাইলে সামান্য রং করে নিতে পারেন। সিলিংয়ের মধ্যবর্তী স্থানে এ্যান্টিকের নকশা করা আয়না বসিয়ে দিন। দেখবেন দারুণ মানিয়েছে।

বাথরুমে বড় আয়না

বাথরুমের আকার ছোট হলে আমরা অনেকেই মন খারাপ করি। এক্ষেত্রে একটি বড় জোড়া আয়না বসিয়ে দিন। দেখবেন পরিসর বড় দেখাবে।

রান্নাঘরে আয়না

রান্নাঘরের সিঙ্কের উল্টো পাশের দেয়ালে আয়না বসিয়ে দিন। দেখবেন সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেয়েছে। কাজের মাঝে নিজের অজান্তেই ক্লান্ত রূপটি এক ঝলক দেখে নিলেন, একটু হলেও ক্লান্তি কমবে।

এ ছাড়া কেবিনেটের দরজায় আপনি গ্লাস বসিয়ে দিতে পারেন। এতে সৌন্দর্য বাড়বে।

কিভাবে যত্ন নিবেন

সব সৌন্দর্যই ফিকে হয়ে যেতে পারে যত্নের অভাবে। সুন্দর কারুকাজ করা আয়নার ফ্রেমে ধুলো জমে যেতে পারে খুব সহজে, তাই নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন। এ ছাড়া আয়নায়ও ধুলো জমে অস্পষ্ট হয়ে যেতে পারে।

তাই নরম কাগজ কুঁচকে বলের মতো বানিয়ে তা পানিতে সামান্য ভিজিয়ে আয়নাটা মুছুন। তারপর আর একটি শুকনা কাগজ একইভাবে কুঁচকে বলের মতো করে সঙ্গে সঙ্গে ভেজা আয়না মুছে ফেলুন। মনে রাখবেন, কাগজ ভাঁজ করবেন না। কেবল কুঁচকে বলের মতো বানাবেন।

সম্পাদনাঃ গাজী মামুন আহম্মেদ (বাংলার কন্ঠস্বর )

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 111 - Today Page Visits: 2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*