Home » অন্যান্য » জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু

জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা শুরু

বাংলার কন্ঠস্বর প্রতিবেদক : দেশব্যপী অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের সমাপনী পরীক্ষা জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) শুরু হয়েছে।

পয়লা নভেম্বর রবিবার সকাল ১০টায় বাংলা প্রথমপত্র বিষয় দিয়ে শুরু হওয়া এ পরীক্ষা চলবে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

গত বছরের তুলনায় এবার এ দুটি পরীক্ষায় মোট শিক্ষার্থী বেড়েছে দুই লাখ ৩৫ হাজার ২৪১ জন। এ বছর ২৩ লাখ ২৫ হাজার ৯৩৩ শিক্ষার্থী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নেবে। গত বছর পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৯০ হাজার ৬৯২ জন।

এবার জেএসসিতে ১৯ লাখ ৬৭ হাজার ৪৪৭ জন ও জেডিসিতে তিন লাখ ৫৮ হাজার ৪৮৬ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১২ লাখ ৪৩ হাজার ২৬৩ জন ছাত্রী এবং ১০ লাখ ৮২ হাজার ৬৭০ জন ছাত্র। ছাত্রীর সংখ্যা ছাত্রদের তুলনায় এক লাখ ৬০ হাজার ৫৯৩ জন বেশি।

এবার দুই হাজার ৬২৭টি কেন্দ্রে ২৮ হাজার ৬৩২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পরীক্ষা দেবে। বিদেশের আটটি কেন্দ্রে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৫৮৫ জন।

এ বছর জেএসসিতে অনিয়মিত পরীক্ষার্থী এক লাখ ১৮ হাজার ২১৪ ও জেডিসিতে ১৪ হাজার ৭৭৯ জন। এ ছাড়া এবার বিশেষ পরীক্ষার্থী (এক থেকে তিন বিষয়ে ফেল) জেএসসিতে এক লাখ ৯ হাজার ৬২০ জন ও জেডিসিতে ১১ হাজার ৯৫১ জন।

অষ্টম শ্রেণীতে উন্নীত হওয়া ৫০০টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীরা এ বছর জেএসসিতে অংশ নিচ্ছে।

বাংলা দ্বিতীয়পত্র এবং ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয়পত্র ছাড়া সকল বিষয়ে সৃজনশীল প্রশ্নে পরীক্ষা দিতে হবে।

বহুনির্বাচনী ও সৃজনশীল প্রশ্নপত্রে দুটি বিভাগ থাকলেও দুটি অংশ মিলে ৩৩ পেলেই পাস বলে গণ্য হবে। অর্থাৎ এসএসসির মতো দুটি অংশে আলাদা আলাদা পাসের প্রয়োজন নেই।

প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীরা এবারও অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় পাবে। এ ছাড়া দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পালসিজনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই তারা শ্রুতি লেখক সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষা দিতে পারবে।

জেএসসি এবং জেডিসির ওপর ভিত্তি করেই শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেওয়া হবে, আলাদা করে বৃত্তি পরীক্ষা দিতে হবে না।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 88 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*