Home » রাজনীতি » ‘বুকভরা আশা’ ভঙ্গ করলেন সোহেল তাজ!

‘বুকভরা আশা’ ভঙ্গ করলেন সোহেল তাজ!

বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদের সুযোগ্য পুত্র ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তানজিম আহমেদ সোহেল তাজের রাজনীতিতে না ফেরার ঘোষণায় হতাশা প্রকাশ করেছেন তার ভক্ত ও শুভানুধ্যায়ীরা। তারা বলছেন, এতে তাদের আশাভঙ্গ হলো। সোহেল তাজের মতো একজন ‘স্বচ্ছ’ রাজনীতিকের অভাববোধ করছে তরুণ প্রজন্ম।

দেশে ফেরার পর ২৩ জানুয়ারি রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে যান সোহেল তাজ। দীর্ঘ বিরতির পর তাজকে কাছে পেয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে বুকে টেনে নেন ‘মমতাময়ী’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই সময় দুই বোন সিমিন হোসেন রিমি ও মাহজাবিন আহমেদ মিমিও তার সঙ্গে ছিলেন।

পরে শেখ হাসিনার সঙ্গে সোহেল তাজের আবেগঘন সাক্ষাতের ছবি ‘ব্রাদার অ্যান্ড সিস্টার রিইউনিয়ন’ শিরোনামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেন মিমি। এই ছবি ছড়িয়ে পড়ে ফেসবুকসহ গণমাধ্যমগুলোয়। সব ‘অভিমান’ ভুলে সোহেল তাজ আবার রাজনীতিতে ফিরে আসবেন, এমন আশা প্রকাশ করে স্ট্যাটাস দেন হাজারও তরুণ-তরুণী।

কিন্তু পরদিনই সোমবার সে আশা ভঙ্গ হয় অসংখ্য মানুষের। ফেসবুকে দুটি স্ট্যাটাসে সোহেল তাজ সাফ জানিয়ে দেন, রাজনীতি ফেরার ইচ্ছে নেই তার। তিনি বলেন, ‘গণমাধ্যম আমার আবার রাজনীতিতে ফেরার বিষয়ে যে সংবাদ প্রচার করছে তা একেবারেই মিথ্যা।’

‘তাজউদ্দিন আহমেদ ও সাইয়েদা জোহরা তাজউদ্দিন মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন’-এর যাত্রা শুরুর জন্য কৃতজ্ঞতা জানাতে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে গিয়েছিলেন বলে জানান তিনি।

দৃঢ়চেতা সোহেল তাজ বলেন, ‘আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এবং স্বাধীনতা যুদ্ধে আমার বাবার সমগ্র জীবন উৎসর্গ করা অর্থাৎ দেশের জন্য এত বড় স্বার্থ ত্যাগের যে আদর্শ সেই আদর্শে বিশ্বাসী ছিলাম, আছি এবং থাকব।’

সোহেল তাজের রাজনীতি না ফেরার ঘোষণায় আশাহত হয়ে প্রাণতোষ দাস ছোটন ফেসবুকে লিখেছেন, ‘অনেক কষ্ট পেলাম। বার বার বলব ফিরে আসুন। দেখিয়ে দিন রাজনীতিতে সব খারাপ লোক নয়। ভালো মানুষও আছে। জনগণের সমর্থন কখনো বিমুখ করবেন না। এখন ৪০% তরুণ এবং যুবক মোট জনসংখ্যার। ওদের কিছুটা হলেও উপলব্ধিটা বুঝুন।’

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 83 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*