Home » অপরাধ » কিশোরীর পর রাজশাহীতে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

কিশোরীর পর রাজশাহীতে গৃহবধূকে গণধর্ষণ

বাংলার কন্ঠস্বরঃ

এক কিশোরী গণধর্ষণের একদিন পর রাজশাহীতে বৃহস্পতিবার রাতে এক গৃহবধূ গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। গোদাগাড়ী উপজেলার রাজাবাড়ী এলাকায় গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। তাকে রাতে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক)হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি)ভর্তি করা হয়েছে।ভর্তির কয়েক ঘণ্টা পর তিনি সংজ্ঞা ফিরে পান। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, পাষবিক নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধুর বাবার বাড়ি রাজশাহী নগরীর ছোটবনগ্রামে।স্বামী গোদাগাড়ী এলাকায় একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করেন।এই সূত্রে তিনি গোদাগাড়ীর রাজাবাড়ীহাট এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে গৃহবধু বাসায় স্বামীর ফেরার অপেক্ষায় ছিলেন।এসময় এলাকার চার বখাটে গৃহবধুর স্বামীকে খোজার অজুহাতে বাসায় প্রবেশ করে। তারা হঠাৎ গৃহবধুর হাত পা ও মুখ বেঁধে ফেলে এবং পালাক্রমে ধর্ষণ করে।এক পর্যায়ে গৃহবধু অচেতন হয়ে পড়লে বাসার মালিক ঘটনা টের পেয়ে চিৎকার দিলে বখাটেরা দেয়াল টপকে পালিয়ে যায়। পরে বাসা মালিক তার স্বামীকে খবর দেন।খবর পেয়ে স্বামী ছুটে আসেন।বাসার মালিক ও তার স্বামী গৃহবধুকে দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। রামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জানান,বৃহস্পতিবার রাতে ওই গৃহবধূকে তার স্বামী হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য নিয়ে আসেন।হাসপাতালে ভর্তির সময় গৃহবধু অচেতন ছিল। দ্রুত তাকে নির্যাতিত নারীদের চিকিৎসা ও আইনী সহায়তা সেল- হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি)ভর্তি করা হয়।চিকিৎসার পর গভীর রাতে গৃহবধুর জ্ঞান ফিরে আসে। পুলিশ সদস্যরা জানান,গৃহবধু ধর্ষকদের নাম পরিচয় বলতে পারেননি।তবে দেখলে চিনতে পারবেন বলে জানিয়েছেন। ওসিসি সূত্রে জানানো হয়েছে,ধর্ষণের শিকার গৃহবধুর শারিরীক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলে গোদাগাড়ী থানায় ওসিসির পক্ষ থেকে অভিযোগ পাঠানো হবে। এ বিষয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি এসএম আবু ফরহাদ জানান,গৃহবধু গণধর্ষণের বিষয়ে কোনো অভিযোগ থানায় আসেনি।তবে অভিযোগ না পেলেও পুলিশ ঘটনার ব্যাপারে খোঁজখবর নিচ্ছে। এজাহার আসলে মামলা রেকর্ড করা হবে। উল্লেখ্য,গত বুধবার রাতে নগরীর একটি হোটেলে এক কিশোরী গণধর্ষণের শিকার হন। এই কিশোরীও বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে চিকিৎসাধীন আছেন।তবে কোনো ধর্ষককে পুলিশ এখনো গ্রেফতার করতে পারেনি।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 78 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*