Home » রাজনীতি » স্থায়ী কমিটিতে স্থান না হলে মিলবে ভাইস চেয়ারম্যান পদ

স্থায়ী কমিটিতে স্থান না হলে মিলবে ভাইস চেয়ারম্যান পদ

বাংলার কন্ঠস্বরঃ

স্থায়ী কমিটিতে জায়গা না পাওয়া দলের সাংগঠনিক নেতাদের ভাইস চেয়ারম্যান পদে নিয়ে আসবেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এবার গঠনতন্ত্র সংশোধন করে ১৭ জনের পরিবর্তে ভাইস চেয়ারম্যানের সংখ্যা করা হয়েছে ৩৫। দলের যুগ্ম-মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক থেকে শুরু করে সম্পাদক পর্যায়ের একঝাঁক নেতার জায়গা হবে ভাইস চেয়ারম্যান পদে। সাংগঠনিকভাবে দক্ষ নেতাদের এ পদের প্রথম সারিতে রাখা হবে। অন্যদিকে গঠনতন্ত্রে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদ যত খুশি তত করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে বিএনপি-প্রধানকে। বর্তমানে এ পদে রয়েছেন ৩৮ জন। যারা সবাই ভাইস চেয়ারম্যানের পদমর্যাদার। সবাইকে খুশি রেখেই কমিটি করতে চান খালেদা জিয়া। তাই বঞ্চিত সিনিয়র নেতাদের এ পদে রাখার চিন্তাভাবনা চলছে। এ পদের সংখ্যা অর্ধশত ছাড়াতে পারে বলে বিএনপির সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছেন।

 

বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যানের মধ্যে সবচেয়ে প্রবীণ হচ্ছেন বিচারপতি টি এইচ খান। তাকে ওই পদেই রাখা হচ্ছে। তবে দীর্ঘদিন ধরে দেশ ছেড়েছেন কাজী শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদ। বিএনপি ছেড়েছেন শমসের মবিন চৌধুরী ও ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা। মারা গেছেন সৈয়দা রাজিয়া ফয়েজ। কারাগারে রয়েছেন আবদুস সালাম পিন্টু। এ শূন্যপদগুলো পূরণ করা হবে। এ ছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান থেকেও কয়েকজনকে উপদেষ্টা পদে সরিয়ে নেওয়া হতে পারে। আবার উপদেষ্টা থেকে কয়েকজনকে ভাইস চেয়ারম্যান পদেও নিয়ে আসার চিন্তাভাবনা চলছে। অপেক্ষাকৃত নিষ্ক্রিয় নেতাদের উপদেষ্টা পরিষদে নেওয়া হবে।

 

জানা যায়, বিএনপিতে সব মিলিয়ে স্থায়ী কমিটির মাত্র চারটি পদ শূন্য রয়েছে। এ পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন অন্তত ১৬ জন প্রভাবশালী নেতা। এর মধ্যে চারজন স্থায়ী কমিটিতে গেলে বাকিদের ঠাঁই মিলবে ভাইস চেয়ারম্যান পদে। ৩৫ সদস্যের ভাইস চেয়ারম্যান পদে তারা প্রথম সারিতে থাকবেন। সিলেট বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক নিখোঁজ ইলিয়াস আলীকেও ভাইস চেয়ারম্যান পদে রাখা হতে পারে। এবার চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদে সাবেক আমলা, বুদ্ধিজীবী, শিক্ষাবিদ, ব্যবসায়ী, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধির একটি অংশকে রাখা হবে। কয়েকজনকে মন্ত্রণালয়ভিত্তিক কমিটির উপদেষ্টা রাখা হবে। নতুন করে চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হতে বেশ কয়েকজন জোর লবিং করছেন। আবার শোনা যাচ্ছে কাউকে চেয়ারপারসন নিজেই উপদেষ্টা করতে পারেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হতে পারেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ, অধ্যাপক ড. মাহবুব উল্লাহ, ড. তাজমেরী এস ইসলাম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব গাজী মাজহারুল আনোয়ার, সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ, শফিক রেহমান, আবদুল হাই শিকদার প্রমুখ। বিএনপির প্রশিক্ষণবিষয়ক সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামানকে উপদেষ্টা মর্যাদায় দলীয় রাজনৈতিক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ করা হতে পারে।

 

বর্তমানে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদে রয়েছেন হারুনুর রশীদ খান মুন্নু, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, রিয়াজ রহমান, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর, মাহমুদুল হাসান, ড. এম ওসমান ফারুক, উকিল আবদুস সাত্তার, অধ্যাপক এম এ মান্নান, গাজীপুর সিটির বরখাস্তকৃত মেয়র আবদুল মান্নান, ফজলুর রহমান পটল, মোসাদ্দেক আলী ফালু, মুসফিকুর রহমান, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, আবদুল আউয়াল মিন্টু, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, নূরুল ইসলাম, অধ্যাপক মাজেদুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট আহমেদ আজম খান, শামসুজ্জামান দুদু, এ এস এম আবদুল হালিম, রুহুল আলম চৌধুরী, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ, শওকত মাহমুদ, জহুরুল ইসলাম, ব্যারিস্টার হায়দার আলী, এম এ কাইয়ুম, খন্দকার শহিদুল ইসলাম, ক্যাপ্টেন (অব.) সুজাউদ্দিন, অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র মনজুর আলম প্রমুখ। এদের মধ্যে দু-এক জন ঠাঁই পেতে পারেন বিএনপির সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটিতে। একটি অংশ চলে যাবেন ভাইস চেয়ারম্যানে। বড় অংশই থাকবেন একই পদে। জানা যায়, কাউন্সিলের পরই কমিটি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। সম্প্রতি তিনি দলের মহাসচিব হিসেবে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব হিসেবে অ্যাডভোকেট রুহুল কবীর রিজভী ও কোষাধ্যক্ষ হিসেবে মিজানুর রহমান সিনহার নাম ঘোষণা করেছেন। যে কোনো দিনই স্থায়ী কমিটির সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হবে। কমিটি নিয়ে দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গেও ফোনে সলাপরামর্শ করছেন। আগামী এক মাসের মধ্যেই ধাপে ধাপে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলে দলীয় সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানিয়েছেন।

 

এ প্রসঙ্গে বিএনপি স্থায়ী কমিটির এক সদস্য বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, কমিটি নিয়ে কাজ করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। স্থায়ী কমিটিতে কাকে রাখবেন, তা তিনিই নির্ধারণ করবেন। কারণ নেতাদের অবদান সম্পর্কে তার সবই জানা। এ নিয়ে বর্তমান স্থায়ী কমিটির কারও সঙ্গে তার কথা বলার প্রয়োজন নেই।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 51 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*