Home » লিড নিউজ » অপহরণের ৩২ দিন পর ম্যানহোল থেকে স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার

অপহরণের ৩২ দিন পর ম্যানহোল থেকে স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা থেকে অপহরণের ১ মাস ২ দিন পর অপহৃত স্কুল ছাত্র মাহফুজ আলম সজিবের মরদেহ উদ্ধার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশান ব্যাটালিয়ন র‌্যাব। বুধবার সকালে চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সিএ্যান্ডবি পাড়ার একটি বাড়ির সেফটিক ট্যাংকি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সজিব দামুড়হুদা উপজেলার দশমী গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে। সে চুয়াডাঙ্গা ভি.জে সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্র ছিলো।

র‌্যাব জানায়, সজিব অপহরণের পর থেকেই তাকে উদ্ধারে র‌্যাব অভিযান চালাতে থাকে। মঙ্গলবার রাতে র‌্যাব নিশ্চিত হয় যে চুয়াডাঙ্গার আলুকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বার রকিবুল ইসলামের চুয়াডাঙ্গা শহরের সিএ্যান্ডবি পাড়ার একটি বাড়ির সেফটিক ট্রাংকির ভিতরে সজিবকে হত্যার পর লাশ গুম করে রাখা হয়েছে। এরপরই তার মরদেহ উদ্ধারে অভিযান শুরু করা হয়।

ঝিনাইদহ র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক মেজর মনির আহম্মেদ জানান, স্কুল ছাত্র সজিব অপহরণের ১/২ দিনের ভিতরে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার পর লাশ গুম করতেই ওই বসত বাড়ির সেফটিক ট্রাংকির ভিতরে তাকে ফেলে রেখে মুখ আটকিয়ে রাখা হয়। সজিব হত্যাকারীদের গ্রেফতারেও অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

সজিবের মামা আব্দুল হালিম জানান, দামুড়হুদা উপজেলা প্রাঙ্গনে কৃষি মেলা দেখতে গিয়ে গত ২৯ জুলাই অপহরণের শিকার হয় সজিব। এর এক দিন পর তার মুক্তিপণ বাবদ ২০ লাখ টাকা দাবি করে অজ্ঞাত দূর্বত্তরা। আমরা টাকা দিতে রাজিও হয়। কিন্তু অপহরণকারীরা সজিবকে বাঁচতে দিলো না। এদিকে, চুয়াডাঙ্গার আলুকদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক মেম্বার রকিবুল ইসলামকে গ্রামের বাড়ি থেকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে গত রাতে তুলে নিয়ে যায়। রকিবুলের পরিবার এমনটি দাবি করলেও চুয়াডাঙ্গা সদর থানা পুলিশ ও র‌্যাব-৬ তাকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেনি।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 46 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*