Home » খুলনা » যয়শোর » বেনাপোল সি এন্ড এফ স্টাফ এ্যসোসিয়েশনের কর্মসূচি প্রত্যাহার করে কাজে ফিরলো

বেনাপোল সি এন্ড এফ স্টাফ এ্যসোসিয়েশনের কর্মসূচি প্রত্যাহার করে কাজে ফিরলো

হাসান তামিম,বেনাপোল প্রতিনিধি (যশোর): বেনাপোল সি এন্ড এফ এজেন্ট স্টাফ এ্যসোসিয়েসান এর সদস্য মীরা এজেন্সির কর্মচারী গতকাল কাস্টমস্ কর্মকর্তা কতৃক লাঞ্চিত হওয়া প্রতিবাদে  কাস্টমস্ হাউসের প্রবেশ মূখে জড়ো হয়ে কর্মবিরতি পালন কর্মসূচী হঠাৎ করেই নাটকীয় ভাবে পত্যাহার করা হলো। আজ সকাল ৮ ঘটিকা হতে সি এন্ড এফ এজেন্টের কর্মচারীরা মাইক টাঙিয়ে ঘটা করে তাদের ন্যায্য দাবী আদায় পূরন না হওয়া পর্যন্ত কর্মসূচী চালানোর ঘোসনা দিলেও কোন অলৌকিক শিক্ততে তারা কাজে যোগ দিলো তা ধুয়াসা রয়েছে। উপস্থিত হওয়া প্রায় ৫০০ সি এন্ড এফ এজেন্টের কর্মচারীদের উদ্দেশ্য সংগঠনের সাধারন সম্পাদক মোঃ নাসির উদ্দিন তার বক্তৃতায় বলেন কাস্টমস্ কতৃপহ্মের অহেতুক হয়রানী মূলক কর্মকান্ড বন্ধে সুনির্দিষ্ট দিক নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত তারা  আন্দোলন হতে সরবেনা। স্টাফ এ্যসোসিয়েশানের ডাকা কর্মবিরতির জন্য বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সকল কার্যাদী  ও বেনাপোল স্থল বন্দরের লোড আনলোড প্রক্রিয়া ,আমদানী পন্য বন্দরের অভ্যান্তরে ঢোকা সহ সকল কার্যক্রম বন্ধ ছিলো। হঠাত আন্দোলন হতে সরে আসা প্রশ্নে কাস্টমস হাউস ও স্টাফ এ্যসোসিয়েশানের পহ্ম হতে নির্ভর যোগ্য তথ্য পাওয়া যায়নী। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক  এ্যসোসিয়েশান নেতৃবৃন্দের এক কর্মকর্তা জানান দীর্ঘ ছুটির কথা মাথায় নিয়ে আমদানী কারকদের হ্মতির হাত হতে রহ্মা করতে  সিএন্ড এফ মািলকদের অনুরোধেএ রকম সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে তবে ঈদ শেষে বৃহত্তর আন্দোলন হবে।ঈদ বন্ধ আগ হতে বিবেচনা করে কর্মসূচি ঘোসনা করা হলোনা কেন  ও আন্দোলনের মাধ্যমে অহেতুক আমদানী করা হলো কেন বা আন্দোলনের নামে কাস্টমস্ হতে অবৈধ্য সুবিধা আদায়ের পরিকল্পনা ছিলো কিনা এমন প্রশ্নে এড়িয়ে গিয়ে বলেন ওটা সভাপতি, সাধারন সম্পাদক ভালো বলতে পারবে।বেনাপোল কাস্টমস্ সুত্রে জানা যায় তাদের দাবী দাবা নিয়ে তাদের কর্মকর্তাদের সাথে কোন প্রকার আলোচনা হয়নি তারা শুধু জানে সিএন্ড এফ স্টাফদের  একটি দলের অবরোধে কাস্টমস হাউসের গেট ঘন্টা দুই বন্ধ ছিলো।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 60 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*