Home » অর্থ ও বানিজ্য » সেই ভয়াল ক্ষত সারাতে ৬ হাজার কোটি টাকা

সেই ভয়াল ক্ষত সারাতে ৬ হাজার কোটি টাকা

বাংলার কন্ঠস্বর//  চলতি বছরের ২১ মে’র ভয়াল ঘূর্ণিঝড় আম্পানের ২৮ ঘণ্টার তাণ্ডবে দেশের উপকূলীয় অঞ্চল লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়। অন্তত ২৬টি জেলায় প্রায় ১ হাজার ১০০ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়, ৬ জেলায় মৃত্যু হয় ২১ জনের। ওই ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে ৫ হাজার ৯০৫ কোটি টাকার একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে সরকার।পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ‘ঘূর্ণিঝড় আম্পান ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী সড়ক অবকাঠামো পুনর্বাসন প্রকল্প’ নামের এ প্রকল্পের আওতায় খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম ও ঢাকা বিভাগের ১৪ জেলার ৬৯টি উপজেলায় ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক, সেতু, কালভার্ট নির্মাণ করা হবে।প্রকল্পটি গত ১৭ নভেম্বর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদন দেয়া হয়েছে। ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বরাদ্দবিহীন অননুমোদিত প্রকল্প হিসেবে ছিল এটি।জানা গেছে, এ প্রকল্পে ঘূর্ণিঝড় ছাড়াও ২০১৯ সালের বন্যায় দেশের বিভিন্ন বিভাগের কয়েক ডজন জেলার ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামীণ সড়ক ও অবকাঠামো নির্মিত হবে। এছাড়াও কৃষি ও অকৃষি খাতের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং গ্রামীণ অর্থনীতি শক্তিশালী করার জন্য পদক্ষেপ নেয়া হবে।স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উদ্যোগে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)। বলা হচ্ছে, ২০২৩ সালের ডিসেম্বর নাগাদ শতভাগ বাস্তবায়িত হবে প্রকল্পটি।প্রকল্পের অধীনে ২ হাজার ৩৮৮ দশমিক ৩৪ কিলোমিটার উপজেলা সড়ক পুনর্বাসন, ২ হাজার ২৭৪ দশমিক ৬৮ কিলোমিটার ইউনিয়ন সড়ক পুনর্বাসন, ১ হাজার ৫৩৪ দশমিক ৯৪ কিলোমিটার গ্রাম সড়ক পুনর্বাসন, ৭৮ কিলোমিটার আরসিসি সড়ক পুনর্বাসন করা হবে। এছাড়া পুনর্বাসন ও পুননির্মাণ করা হবে ২৬৮টি ব্রিজ, ২৩৯টি কালভার্ট।প্রকল্পটি সময়োপযোগী উল্লেখ করে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, এটি বাস্তবায়িত হলে গ্রামীণ অবকাঠামোর যেমন উন্নয়ন হবে, তেমনই কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। এর ফলে গ্রামীণ অর্থনীতি সচল হবে, জীবনযাত্রার মানও বৃদ্ধি পাবে।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 57 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*