Home » সর্বশেষ সংবাদ » দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে পাঠানো হচ্ছে কৃষি শ্রমিক

দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে পাঠানো হচ্ছে কৃষি শ্রমিক

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি // চলমান লকডাউনের মাঝে কাজের সুযোগ পাওয়ায় খুশি কুড়িগ্রামের কৃষি শ্রমিকরা। প্রশাসনের ক্লিয়ারেন্সের মাধ্যমে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে পাঠানো হচ্ছে এসব শ্রমিককে। বর্তমানে কর্মহীন মানুষগুলো জেলার বাইরে গিয়ে কাজের মাধ্যমে পরিবারে দুমুঠো খাবার তুলে দিতে পারবে এ আশায় খুশি তারা। শনিবার পর্যন্ত জেলা থেকে ৮৪৯ জন শ্রমি ধান কাটতে অন্যত্র গেছে বলে জানিয়েছে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ।

 

জানা যায়, চলতি বছর বিরূপ আবহাওয়ার মধ্যেও দেশে বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। করোনা বিস্তারের কারণে দেশে লকডাউন ঘোষণা করায় বিপাকে ছিল কৃষি জমির মালিকরা। তবে সরকারের সহযোগিতার মাধ্যমে স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিম্নআয়ের শ্রমিকরা জেলার বাইরে গিয়ে পাচ্ছে কাজের সুযোগ। আর জমির মালিকদের মধ্যে নেমে এসেছে স্বস্তি।

জেলা প্রশাসন কাজে যেতে ইচ্ছুক এমন শ্রমিকদের তালিকা করতে উপজেলা পর্যায়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, থানার অফিসার ইনচার্জ ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার সমন্বয়ে টিম গঠন করে আইডি কার্ড ও ছাড়পত্রের মাধ্যমে এসব শ্রমিকদের বাইরে পাঠাচ্ছে। এর ফলে দারিদ্রপীড়িত ও কর্মহীন কুড়িগ্রাম জেলার কৃষি শ্রমিকদের মধ্যে সৃষ্টি হয়েছে কাজের সুযোগ। এতে ভীষণ খুশি তারা।

জেলায় ৩ থেকে ৪শ’ টাকা মজুরি দিয়ে বড় সংসার চালাতে হিমশিম অবস্থা হয় তাদের। মাঝেমধ্যে কাজও থাকে না। অপরদিকে বাইরের জেলায় গিয়ে শ্রম দিয়ে তারা গড়ে দৈনিক ৬ থেকে ৭শ’ টাকা আয় করতে পারে। ফলে দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলে ছুটছে এসব শ্রমিক।

ধান কাটতে যাওয়া নাগেশ্বরীর কচাকাটা থানার শ্রমিক মনজু, কালাম ও ছামসুল বলেন, ‘কাজকাম নাই, ঘরে বসি ছিলাম। সরকারি সহযোগিতায় জেলার বাইরে কাজ করতে যেতে পারছি, এজন্য আমরা খুশি। রমজানের পর সামনে ঈদ। এখন কাজ করে টাকা জমাতে পারলে ঈদের দিনে পরিবারের মুখে হাসি ফোটাতে পারবো।’

কুড়িগ্রামের কর্ণফুলি স্পেশাল পরিবহনের সত্ত্বাধিকারী আল আমিন জানান, লকডাউন থাকায় বাস মালিকসহ শ্রমিকরা ক্ষতির মুখে পড়েছেন। সরকারের পক্ষ থেকে বোরো ধান কাটতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রমিক পাঠানোর ব্যবস্থায় খুশি বাস মালিকরাও। লকডাউন শিথিল করে এই অঞ্চলের মানুষের জীবন-মান স্বাভাবিক করতে সরকারের প্রতি দাবি বাস মালিকদের।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রুহুল আমিন বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ধান কাটার জন্য কৃষিশ্রমিক পাঠানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মঞ্জুরুল ইসলাম জানান, স্বাস্থ্যবিধি মেনে বোরো ধান কাটার জন্য কুড়িগ্রাম থেকে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে কৃষি শ্রমিক পাঠানো হচ্ছে। এজন্য মাইকিং করে প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

তিনি বলেন, প্রতিটি উপজেলায় ইউএনও, ওসি এবং কৃষি অফিসারের সমন্বয়ে একটি টিম শ্রমিকদের বাছাই করছে। তারা আইডি কার্ড, ছাড়পত্রের বিষয়ে কাজ করছে। শনিবার পর্যন্ত কুড়িগ্রাম থেকে ৮৪৯ জন শ্রমিক কাজে গেছে। লকডাউন চলাকালিন সময়ে বিধি মেনে শ্রমিক পাঠানো অব্যাহত থাকবে।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 33 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*