Home » বরিশাল » মেহেন্দিগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহারের তালিকা প্রণয়নে ব্যপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতি

মেহেন্দিগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহারের তালিকা প্রণয়নে ব্যপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতি

বিশেষ প্রতিনিধি ।। 
ঈদ উপলক্ষে করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর বরাদ্দকৃত এককালীন উপহারের আড়াই হাজার টাকা পাচ্ছেন না মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার ১৬ টি ইউনিয়নের বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের অনুসারী অর্থাৎ স্থানীয় সাংসদ পংকজ নাথ’র মতের বাহিরের কয়েক হাজার গরীব অসহায় ও দুস্থ লোকজন। এদের মধ্যে অনেকেই শ্রমজীবী, মৎস্য শিকারের পাশাপাশি কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন এবং আ’লীগের বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মী।কভিড-১৯ এর প্রভাবে কাজ কর্ম বন্ধ থাকায় মানবেতর দিন কাটাচ্ছেন তারা। এছাড়াও ঈদের বিশেষ ভিজিএফের পরিবর্তে নগদ টাকা থেকেও তাদের বঞ্চিত করা হয়েছে। এদের অভিযোগ এরা আ’লীগ মনোনীত নৌকার কর্মী ও সমর্থক। অথচ একের পর এক সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থীর কর্মী সমর্থক এবং বিএনপির লোকজন।
একাধিক ব্যাক্তি জানান, করোনাভাইরাসের কারণে আয়-রোজগার বন্ধ হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত সরকারি কোন সাহায্যে সহযোগিতা পায়নি।

উলানিয়া দক্ষিণ ইউনিয়নের হুমায়ুন, উত্তর উলানিয়া ইউনিয়নের আলমগীর, দড়িরচর খাজুরিয়া ইউনিয়নের মোশাররফসহ স্থানীয় অনেকেই বলেন, মাছ ধরে, কৃষি কাজ করে, কামলা দিয়ে আমরা জীবিকা নির্বাহ করতাম। ভাইরাসের কারণে হাটবাজারসহ সবকিছু বন্ধ থাকায় বিপদে পড়েছি। শুনেছি প্রধানমন্ত্রী মোবাইলের মাধ্যমে আড়াই হাজার করে টাকা দিচ্ছেন, কিন্তু কারা পাচ্ছেন এই টাকা। আমাদের এই এলাকায় সাংসদ পংকজ নাথ তার অনুসারীদের মাধ্যমে তাদের পছন্দের লোকদের নামে তালিকা তৈরি করেছে। আমাদের কাউকে মোবাইল ব্যাংকিয়ে টাকা তালিকায় নাম উঠাননি। এখানে নৌকার প্রার্থীর কর্মী সমর্থক এবং অনুসারীদের বাদ দিয়ে তালিকা তৈরি করা হয়েছে।
উলানিয়া দক্ষিণ ইউনিয়নের নৌকার চেয়ারম্যান প্রর্থী আবদুল হামিদ চৌধুরীর বলেন আমার জানামতে এই ইউনিয়নে নৌকার কোন কর্মী-সমার্থক কেহ প্রধানমন্ত্রীর উপহার পায়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উলানিয়া ইউনিয়নের প্রশাসকের দায়িত্বে থাকা সমাজ সেবা অফিসার মাহমুদুল হাসান বলেন আমার কাজে এরকম কোন অভিযোগ আসেনি,তারপর আপনার তথ্য অনুসারে আমি তদন্ত করে ব্যবস্তা গ্রহন করবো।

মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন আমি নতুন যোগদান করেছি, বিষয়টি আমার জানানেই। আমি বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখছি।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 190 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*