Home » অপরাধ » যৌন নিপীড়নের শিকার স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা, গ্রেপ্তার ৭

যৌন নিপীড়নের শিকার স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা, গ্রেপ্তার ৭

জয়পুরহাট প্রতিনিধি // জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলা আটিগ্রামে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে (১৫) যৌন নিপীড়ন করার পর অপহরণের সময় ৭ বখাটেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এদিকে অপমান সহ্য করতে না পেরে কীটনাশক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন ওই ছাত্রী।

স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ক্ষেতলাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হওয়ায় চিকিৎসক বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, ক্ষেতলাল উপজেলার ধনকুড়াইল গ্রামের হেলালের ছেলে শিহাব (১৯) একই এলাকার আসমত আলীর ছেলে জহুরুল ইসলাম (১৯) ইসলামপুরের ইব্রাহিমের ছেলে মোমিন (১৮) রামকুড়া গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে আশরাফুল (১৯) খলিলুর রহমানের ছেলে লিটন (১৯), সুর্যবানের আজিমুদ্দিনের ছেলে ইমন (১৮) আটিগ্রামের শামসুল আলমের ছেলে সাজ্জাদুল ইসলাম।

মামলার বিবরণ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ক্ষেতলাল উপজেলার আটিগ্রাম হিন্দু পাড়ায় হিন্দু সম্প্রদায়ের নবম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই ছাত্রী স্থানীয় প্রাইভেট সেন্টারে প্রতিদিন প্রাইভেট পড়তে যেত। এরই সুবাধে শিহাব তাকে প্রায়ই প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো। কিন্তু ওই স্কুলছাত্রী তা প্রত্যাখ্যান করে আসছিলো। এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার দুপুরে ছাত্রীটির বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে শিহাবসহ গ্রেপ্তারকৃতরা তার বাড়িতে প্রবেশ করে।

এরপর মেয়েটিকে তাদের সাথে যেতে বলে। মেয়েটি যেতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে যৌন নিপীড়নের পর টেনে হেঁচড়ে নিয়ে যেতে থাকে গ্রেপ্তারকৃতরা। এ সময় মেয়েটির চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন গ্রামবাসী ধাওয়া করে তাদের আটক করে উত্তম মাধ্যম দেয়। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে অভিযুক্তদের আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এরপরে অপমান-লোক লজ্জায় ওই ছাত্রী সবারে অগোচরে কীটনাশক পান করে। এসময় পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে ক্ষেতলাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

ক্ষেতলাল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নীরেন্দ্রনাথ মণ্ডল বাংলাদেশ জার্নালকে জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। এর সাথে জড়িত ৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও ওই ছাত্রীর অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হওয়ায় তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেছেন চিকিৎসক।

পাঠকের মতামত...

Print Friendly, PDF & Email
Total Page Visits: 30 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*