ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৪ আগস্ট ২০২২
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. খেলা
  5. জাতীয়
  6. প্রচ্ছদ
  7. ফিচার
  8. বিনোদন
  9. রাজনীতি
  10. সর্বশেষ
  11. সারাদেশ
  12. স্বাস্থ্য

সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকে আধাবেলাতেই প্রত্যাহার (!)

admin
আগস্ট ৪, ২০২২ ৩:১৬ অপরাহ্ণ
Link Copied!

নিজস্ব প্রতিবেদক // ভোলায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ জেলা ছাত্রদল সভাপতি ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীর নিহতের প্রতিবাদে জেলায় সকাল-সন্ধ্যা ডাকা হরতাল আধাবেলাতেই প্রত্যাহার করল বিএনপি। কারণ হিসেবে দলের নেতা-কর্মীরা বলছেন, জনগণের দুর্ভোগের কথা ভেবেই দিনব্যাপি ডাকা হরতাল দুপুরে প্রত্যাহার করা হয়েছে। জেলা বিএনপি কার্যালয়ে বেলা ১২টায় সংবাদ সম্মেলন করে হরতাল প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীর।

গত রোববার সারাদেশে লোডশেডিং ও জ্বালানি অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ভোলায় বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় দলটির নেতা-কর্মীদের। পুলিশ সদস্যসহ বিএনপির শতাধিক নেতা-কর্মী আহত হন। গুলিবিদ্ধ হন কয়েকজন।

এ ঘটনায় সেদিনই স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্যসচিব আবদুর রহিম মারা যান। বৃহস্পতিবার বেলা ৩টার দিকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সংঘর্ষে গুলিতে আহত ভোলা ছাত্রদল সভাপতি মো. নুরে আলমও।

এ ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডাকে জেলা বিএনপি। জনগণের দুর্ভোগের কথা জানিয়ে দিনব্যাপী ডাকা এ হরতাল দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন দলটির নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘সরকার জনগণের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে গুলি করে রহিম এবং ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলমকে হত্যা করেছে। বিএনপিসহ দেশবাসী এই হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘লাশের রাজনীতি বিএনপি করে না। আওয়ামী লীগ বলে আগস্ট মাস শোকের মাস। অথচ তারা ভোলায় দুটো তাজা প্রাণ কেড়ে নিয়ে আগস্ট মাস শুরু করেছে।’

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অবসরপ্রাপ্ত) হাফিজ উদ্দিন আহম্মেদ (বীর বিক্রম) বলেন, ‘সরকার জনগণের দাবি দাবায়ে রাখার জন্য গুলি করে দুটি প্রাণ কেড়ে নিয়েছে। পুলিশ আন্দোলনকারীদের বুকে, মাথায় গুলি করতে পারে না। গুলি করতে হলে করবে হাঁটুর নিচে। কিন্তু ভোলায় পুলিশ গুলি করেছে মাথায়, বুকে।’

এদিকে বিএনপির আধাবেলার হরতালের চিত্র ছিল স্বাভাবিক। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মিছিল করেছেন দলের নেতা-কর্মীরা। কোথাও কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। তবে সকাল থেকেই বন্ধ দেখা গেছে জেলা শহরের দোকানপাট ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান।

শহরের মোড়ে মোড়ে সতর্ক থাকতে দেখা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকেও। সীমিত আকারে যানবাহন চলাচল করেছে। লঞ্চ ও ফেরি চলাচল ছিল স্বাভাবিক।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।