Home » আন্তজাতিক » সেলফি তোলার সময় বজ্রাঘাতে ১১ মৃত্যু

সেলফি তোলার সময় বজ্রাঘাতে ১১ মৃত্যু

Spread the love

অনলাইন ডেস্ক // ভারতের জয়পুরের জনপ্রিয় পর্যটনকেন্দ্র আমের ফোর্টের ওয়াচ টাওয়ারে উঠে সেলফি তুলছিলেন একদল পর্যটক। এ সময় বজ্রপাত হয়, এতে মারা গেছেন ১১ জন। গতকাল রোববার এ ঘটনা ঘটে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি তাদের এক প্রতিবেদনে বলেছে, বজ্রপাতের সময় আমের ফোর্টের ওয়াচ টাওয়ারে ২৭ জনের পর্যটক ছিল। বজ্রাঘাতে তাদের মধ্যে ১১ জন মারা গেছেন। কয়েকজন আহতও হয়েছেন। বজ্রপাতের সময় প্রাণ বাঁচাতে কেউ কেউ ওয়াচ টাওয়ার থেকে লাফও দিয়েছেন।

জয়পুর পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আমের ফোর্টের ওয়াচ টাওয়ারটি পর্যটকদের মাঝে বেশ জনপ্রিয়। বজ্রপাতের সময় বেশিরভাগ তরুণ সেখানে ছিলেন। মৃত্যুর শিকার বেশিরভাগ কম বয়সী।

শুধু ওই ফোর্টেই নয়, জয়পুরের কেন্দ্র অর্থাৎ রাজস্থানের অন্যান্য জায়গায় বজ্রপাতে আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। যারা মারা গেছেন প্রত্যেকের পরিবারের জন্য ৫ লাখ রুপি ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অমোক গেহলট।

আমের ফোর্টসহ সারা ভারতে বজ্রপাতে ৬৮ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া গুরুতর আহত হয়েছেন ১৭ জন। নিহতদের মধ্যে নারী ও শিশুও রয়েছে। গতকাল রোববার দেশটির উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে তীব্র বৃষ্টিপাতের মাঝে বজ্রপাতে এসব প্রাণহানির ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

এনডিটিভি বলছে, রোববার বজ্রপাতে উত্তরপ্রদেশে নিহত হয়েছেন মোট ৪১ জন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি নিহতের ঘটনা ঘটেছে রাজ্যটির প্রায়াগরাজ জেলায়। সেখানে ১৪ জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া ফিরোজাবাদ জেলায় নিহত হয়েছেন ৩ জন। এছাড়া রাজ্যটির শিকোহাবাদের নাগলা উমর গ্রামে দুজন কৃষক মাঠে কাজ করছিলেন, এসময় হঠাৎ করে বৃষ্টি আসায় তারা একটি নিমগাছের নিচে আশ্রয় নেন। একপর্যায়ে সরসারি নিম গাছে বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলেই ওই দুজনের মৃত্যু হয়। অপর একটি গ্রামেও অমর সিং নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়।

শুধু মানুষ না, বজ্রপাতে মারা গেছে গরু-ছাগলও। এসময় ৪২টি ছাগল ও একটি গরুর মৃত্যু হয়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজ বলছে, রোববার বজ্রপাতে রাজস্থানে ৭ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে জয়পুরের সওয়াই মানসিং হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া মধ্যপ্রদেশ থেকে আরও সাত জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি।

এক টুইট বার্তায় মোদি বলেন, ‘রাজস্থানের কিছু জায়গায় বজ্রপাতে প্রাণ হারিয়েছেন অনেকে। এতে অনেক ক্ষতি হয়েছে। আমি নিহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*